kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

কুসিক নির্বাচন : ইভিএম কাস্টমাইজেশনে প্রার্থীদের ঢাকায় আমন্ত্রণ

কুমিল্লা প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০২২ ০০:৩৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কুসিক নির্বাচন : ইভিএম কাস্টমাইজেশনে প্রার্থীদের ঢাকায় আমন্ত্রণ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে প্রার্থীদের জন্য ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) কাস্টমাইজেশন কার্যক্রম রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে করা হবে। এতে প্রার্থী অথবা তাদের মনোনীত কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন প্রতিনিধিদের সেখানে উপস্থিত থাকতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী।  

বুধবার রাতে এক বিজ্ঞপ্তিতে মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী জানান, ইভিএম কাস্টমাইজেশন কার্যক্রম যারা পর্যবেক্ষণ করতে চান, তারা ২৬ মে বিকেল ৪টার মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে বা প্রতিনিধির নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর উল্লেখ করে আবেদন করতে হবে। ২৬ মের মধ্যে আবেদন না করলে ধরে নেওয়া হবে যে ওই প্রার্থী ইভিএম কাস্টমাইজেশন প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে আগ্রহী নন।

বিজ্ঞাপন

মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রার্থীদের ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন যাচাই করে দেখার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। এ জন্য তাদের রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে যেতে হবে। সেখানেই ইভিএম কাস্টমাইজেশন করে দেখানো হবে। আগামী ১৫ জুন ১০৫ কেন্দ্রের সব কটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ইভিএম পদ্ধতিতে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার কুসিক নির্বাচনে বিএনপিপন্থী স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) পরিবর্তে ব্যালটে ভোটগ্রহণের দাবি তোলেন। একই সঙ্গে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ বাতিলের দাবি জানান তিনি। এ ছাড়া নগরীতে কর্মরত পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদেরও বদলির দাবি জানান বিএনপিপন্থী এই প্রার্থী। মঙ্গলবার দুপুরে এ দুটিসহ মোট সাত দফা দাবি জানিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাকে চিঠি দেন কায়সার।  

ওই চিঠিতে কায়সার উল্লেখ করেন, ইভিএমে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে থাকা রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের আপত্তি রয়েছে। সাধারণ ভোটাররাও এ বিষয়ে আপত্তি তোলার পাশাপাশি ভোটের ফলাফল পাল্টিয়ে দেওয়া হবে বলে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন আমাদের প্রার্থীদের নিয়ে এ ব্যাপারে কোনো আলোচনা বা ব্রিফিং কিংবা বিস্তারিত কোনো কিছুই তুলে ধরেননি। তাই আমরাও এ বিষয়ে কিছু জানি না। যেহেতু বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ, তাই কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত বাতিল করে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে স্বচ্ছ ব্যালট বক্সে ভোট গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।

মঙ্গলবার কায়সারের দেওয়া ওই চিঠি পর্যালোচনার জন্য নির্বাচন কমিশনে প্রেরণ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। ওই চিঠি দেওয়ার এক দিন পরেই কুসিক নির্বাচনে প্রার্থীদের ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) কাস্টমাইজেশন কার্যক্রম দেখতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।
 
প্রসঙ্গত, গত ২৫ এপ্রিল কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১৭ মে। মনোনয়নপত্র বাছাই ১৯ মে ও প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৬ মে, প্রতীক বরাদ্দ ২৭ মে। আগামী ১৫ জুন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ১০৫টি কেন্দ্রের ৬৪০টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।  



সাতদিনের সেরা