kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

গরু চুরি করে মাংস বিক্রির অভিযোগ, অতঃপর কসাইয়ের পলায়ন

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি    

২২ মে, ২০২২ ১৪:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গরু চুরি করে মাংস বিক্রির অভিযোগ, অতঃপর কসাইয়ের পলায়ন

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক কসাইয়ের বিরুদ্ধে গরু চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। চোরাই গরুর মাংস বিক্রির সময় এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে জেরার মুখে কৌশলে পালিয়ে যান কসাই কাবুল সরদার। আজ রবিবার উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের জয়পাশা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরদী গ্রামের বিধবা নারী শুকুরন বেগমের একটি লাল রঙের দুই বছরের বকনা গরু গতকাল শনিবার (২১ মে) রাতে চুরি হয়, যার আনুমানিক মূল্য ৭০ হাজার টাকা।

বিজ্ঞাপন

আজ রবিবার সকালে ওই গরু জবাই করে স্থানীয় জয়পাশা বাজারে মাংস বিক্রি করছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে পরমেশ্বরদী গ্রামের কসাই কাবুল সরদারের বিরুদ্ধে। এ সময় গরুর মালিকসহ এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে তারা গরুর উৎস সম্পর্কে কাবুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জবাবে তিনি গরুটির বিক্রেতা হিসেবে একই গ্রামের ইকতার মোল্যার নাম প্রকাশ করেন। পরে খোঁজখবর নিতে গেলে ইকতার মোল্যা নামে কাউকে ওই এলাকায় পাওয়া যায়নি। অপরদিকে, কসাই কাবুলও পরবর্তী সময়ে গা ঢাকা দেন বলে জানা যায়।

গরুর মালিক শুকুরোন বেগমের ভাই দবির ফকির বলেন, শনিবার গভীর রাতে আমার বোন শুকুরোন বেগম ঘুম থেকে উঠে গোয়ালঘরে গিয়ে দেখে গরু নাই। গরু না পেয়ে খুঁজতে খুঁজতে রবিবার সকালে জয়পাশা বাজারে গিয়ে দেখে ওই গরুর মাংস বিক্রি করছিল কাবুল সরদার। পরে তার কাছে গরু কেনার খবর জানতে চাইলে সে ইকতার মোল্যার নাম বলে পালিয়ে যায়। আমরা আইনের আশ্রয় নেওয়া জন্য বোয়ালমারী যাচ্ছি।

গতকাল রবিবার ডহরনগর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক মো. মনির হোসেন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কসাইকে পাইনি। স্থানীয় মাতুব্বর এবং তার আত্মীয়-স্বজনকে আজকের দিনের মধ্যে কসাইকে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  



সাতদিনের সেরা