kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

হাজার হাজার জিও ব্যাগ গিলে নিচ্ছে যমুনা, ঝুঁকিতে নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধ

কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২১ মে, ২০২২ ১৬:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাজার হাজার জিও ব্যাগ গিলে নিচ্ছে যমুনা, ঝুঁকিতে নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধ

কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার যমুনায় পানি বাড়তে শুরু করেছে। পানি বাড়ার সাথে সাথে নদীতে স্রোতের তীব্রতা বেড়েছে। এ কারণে চরাঞ্চলে দেখা দিয়েছে ভাঙন। বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভাঙনঝুঁকিতে।

বিজ্ঞাপন

বিশেষ করে চরাঞ্চলের প্রাণকেন্দ্র নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধে দেখা দিয়েছে ভাঙন। ফলে বাঁধের অভ্যন্তরের প্রায় দুই হাজার একর জমি যমুনায় বিলীন হওয়ার উপক্রম। ওই বাঁধে থাকা বেশ কয়েকটি বিদ্যুতের খুঁটি এরই মধ্যে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২১ মে) সকালে ভাঙনকবলিত নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধে গিয়ে দেখা গেছে, বাঁধের উভয় পাশেই ভাঙছে। ভাঙন ঠেকাতে সিরাজগঞ্জ পাউবোর দুজন ঠিকাদার জিও ব্যাগে বালি ভরে ভাঙন স্থানে ফেলছেন। তীব্র স্রোতে মুহূর্তেই সেই বস্তা পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। ভাঙন পুরোপুরি থামানো যাচ্ছে না। ওই বাঁধে ভাঙন ঠেকানোর কাজে নিয়োজিত ঠিকাদার মেসার্স সরকার ফার্মের প্রতিনিধি আবুল কালাম আজাদ ওরফে পরান সরকার বলেন, 'নাটুয়ারপাড়াকে রক্ষায় নদীর দিকে পূর্ব-পশ্চিমে লম্বা বাঁধের দক্ষিণাংশে জিও ব্যাগ ফেলছি। কয়েক দিন যাবৎ কাজ করছি; কিন্তু এখন পানি বাড়তে থাকায় ভাঙন বাড়ছে। '

সিরাজগঞ্জ পাউবোর উপসহকারী প্রকৌশলী হায়দার আলী বলেন, 'নাটুয়ারপাড়ার ওই বাঁধটি রক্ষায় আমরা এর মধ্যে আট হাজার বস্তা ফেলেছি। আবারও ভাঙন দেখা দেওয়ায় আজকে দুই হাজার বস্তা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আগামীকাল (২২ মে) থেকে বস্তাগুলো ডাম্পিং করা হবে। '

কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী বলেন, 'বাঁধটি রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজ করছে। সেই সঙ্গে আমাদের এমপি প্রকৌশলী তানভীর শাকিল সাহেব সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন। '

এদিকে পানি বাড়তে থাকায় ভাঙনঝুঁকিতে পড়েছে চরাঞ্চলের ডিক্রি তেকানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাজলগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডগলাস ভেটুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণচর জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।



সাতদিনের সেরা