kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

চৌগাছায় পত্রিকা পরিবেশক শফির মানবেতর জীবনযাপন

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি    

২১ মে, ২০২২ ১৩:৫৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চৌগাছায় পত্রিকা পরিবেশক শফির মানবেতর জীবনযাপন

যশোরের চৌগাছার পরিচিত মুখ পত্রিকার পরিবেশক হুদাফতেপুর গ্রামের শফিকুল ইসলাম শফি (৬১) পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সম্প্রতি তার স্ত্রীও মৃত্যুবরণ করেছেন। এই অবস্থায় দুটি সন্তান নিয়ে তিনি কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। বর্তমানে কিছুটা চলাফেরার জন্য জরুরিভাবে দরকার একটি হুইলচেয়ার।

বিজ্ঞাপন

সহায়তার জন্য জনপ্রতিনিধি ও সরকারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন চৌগাছা প্রেস ক্লাব ও রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংবাদিক নেতারা।  

উপজেলার হুদাফতেপুর গ্রামের মৃত আফজাল হোসেনের ছেলে শফিকুল ইসলাম শফি ছোটবেলা থেকেই সচেতন ছিলেন। ১৯৭১ সালে পিতাকে পাকসেনারা নির্মমভাবে হত্যা করলে পরিবারে নেমে আসে হতাশা। যুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে আর্থিক অনটনে পড়ে পরিবার। এই অবস্থায় তিনি কঠোর পরিশ্রম করে সংসারের হাল ধরেন। নব্বই দশকে তিনি দৈনিক তথ্য পত্রিকায় সংবাদকর্মী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি দৈনিক রানারে কাজ করেন। কিন্তু পরিবারের আর্থিক সংকট ও অভাব দারিদ্রতা তার পিছু ছাড়ে না।  

ফলে তিনি উপজেলর প্রধান পত্রিকার পরিবেশক মরহুম মাওলানা সাইদুল ইসলামের কাছে পত্রিকা পরিবেশকের কাজে যোগ দেন। উপজেলার সকল সরকারি দপ্তর, স্কুল, কলেজ, হাঁটবাজার, বিভিন্ন রাজনৈতিক অফিস, বাসা-বাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে নিজ হাতে গ্রাহকের নিকট পত্রিকা পৌঁছে দিতেন। স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের আস্থাভাজন ও বিশ্বস্ত মানুষ ছিলেন তিনি। জীবনভর পত্রিকার সাথে যুক্ত হয়ে জীবনকে পার করেছেন। কিছুটা কষ্টের মাধ্যমে জীবন অতিবাহিত হলেও তিনি অন্য কোন পেশায় যোগদান করেননি।  

ছেলে আরিফুজ্জামান (১৬) গরীবপুর আদর্শ বিদ্যাপিঠ থেকে এসএসসি পাস করে কলেজে ভর্তি হয়েছে। মেয়ে জান্নাতুল আক্তার আফরিন (৮) স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে।  

ছেলে আরিফুজ্জামান কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, গত বছর আব্বা এক আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে যান। সেখানে হঠাৎ স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার বাঁ পাশের হাত-পা অকেজো হয়ে গেছে। আব্বা বর্তমানে পঙ্গু। দিনমজুরের কাজ করে সংসার চালাচ্ছি। ভালোভাবে আব্বাকে চিকিৎসা করাতে পারছি না। আব্বা অসুস্থ হবার কয়েক মাসের মধ্যে মা মারা গেছেন। পরিবারে দেখাশোনার কেউ নেই। সাংবাদিক কাকুরা ও এলাকার শামীম কাকু কিছু আর্থিক সহযোগিতা করেন। সেই সময় ওই টাকা দিয়ে চিকিৎসা করেছিলাম। এখন টাকা না থাকায় আব্বাকে ডাক্তারের কাছে নিতে পারছি না।  

আরিফ জানায়, আব্বার জন্য জরুরি ভিত্তিতে একটি হুইল চেয়ার দরকার। তাহলে তিনি কিছুটা চলাফেরা করতে পারতেন।   

অসুস্থ ও পঙ্গু পত্রিকা পরিবেশক শফির জন্য হুইলচেয়ারের পাশাপাশি চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন চৌগাছা প্রেস ক্লাব ও রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংবাদিক নেতারা।  

তাকে সাহায্য করতে চাইলে এই নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ করা হয়েছে। মোবাইল নম্বর- ১৭২৮-৪০১১১০।



সাতদিনের সেরা