kalerkantho

রবিবার । ২৬ জুন ২০২২ । ১২ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

টিকটক ভিডিও করতে গিয়ে ব্রিজ থেকে লাফ...

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

২০ মে, ২০২২ ২০:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টিকটক ভিডিও করতে গিয়ে ব্রিজ থেকে লাফ...

'আমি মরলে কেউ কাইন্দো না, কেউ তো কারও নয় রে ভাই'...এ গানটি দিয়ে টিকটকের ভিডিও ধারণ করতে একটি ব্রিজ থেকে লাফ দিয়ে নদীতে ডুবে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুরে। তার নাম মো. মোস্তাকিম (১৬)। আজ শুক্রবার (২০ মে) সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে।  

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চার নম্বর বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খোর্দ্দপাড়ার মন্টু মিয়া ও আহেলা খাতুন দম্পতির ছেলে মোস্তাকিম।

বিজ্ঞাপন

পেশায় সাবান তৈরি কারখানার শ্রমিক। শুক্রবার তাঁর কর্মস্থল সাবান কারখানাটির সাপ্তাহিক ছুটি ছিল। আর তাই সে কয়েকজন বন্ধু মিলে তাদের বাড়ির পাশের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজের ওপর থেকে লাফ দিয়ে টিকটক ভিডিও ধারণ করতে যায়। আর এ সময় ব্রিজের ওপর থেকে মাথা নিচু করে নদীতে লাফ দেয় কিশোর মোস্তাকিম। আর 'আমি মরলে কেউ কাইন্দো না, কেউ তো কারও নয় রে ভাই' গানের ভিডিও চালু করে তাঁর লাফিয়ে পড়ার দৃশ্যটি মোবাইলে ধারণ করে তাঁর বন্ধুরা। এ সময় ব্রিজের ওপর থেকে লাফিয়ে পড়ে নদীর পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয় সে।

খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধারে নদীতে নামে। পরে প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল দীঘলডাঙ্গী ব্রিজের ৫০ গজ দূর থেকে মোস্তাকিমকে উদ্ধার করা হয়। অচেতন অবস্থায় সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে সৈয়দপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. তারেক মাহমুদ হাসপাতালে গিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন। সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মোস্তাকিমের লাশ তার পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সৈয়দপুর থানার ওসি  মো. আবুল হাসানাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা