kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

রামগঞ্জে বাল্যবিয়ে বন্ধ, খাবার খেলেন গ্রামবাসী

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ২৩:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রামগঞ্জে বাল্যবিয়ে বন্ধ, খাবার খেলেন গ্রামবাসী

লক্ষ্মীপুরে রামগঞ্জে স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। এসময় বরসহ মেহমানদের জন্য আয়োজন করা খাবার গ্রামবাসীকে খাওয়ানো হয়েছে। ৩৩৩ নম্বরে ফোন পেয়ে শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিয়ে বাড়িতে হাজির হন। পরে বাল্যবিয়ের কথা জানিয়ে নিষেধ করায় বরসহ অতিথিরা আসেননি।

বিজ্ঞাপন

এসময় অভিভাবকরা প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে না দেওয়ার অঙ্গীকার করেন।

ইউপি চেয়ারম্যান ও থানা পুলিশ জানায়, উপজেলার লামচর ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামের মাহবুবুর রহমানের মেয়ের (মাহমুদা রহমান নাবিলা) বয়স বর্তমানে ১৫ বছর ৯ মাস। তারা ঢাকার ভাটারা এলাকায় থাকতেন। মেয়ে সেখানে একটি স্কুলে পড়ালেখা করতো। সম্প্রতি করোনা মহামারির কারণে তারা গ্রামে চলে আসেন। ওই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে রামগঞ্জের মধ্য আঙ্গারপাড়া এলাকার কালু পাটওয়ারীর ছেলে রবিন পাটওয়ারীর সঙ্গে বিয়ের দিন ধার্য করা হয়। এ বিষয়ে ৩৩৩ নম্বরে অভিযোগ করা হয়। এতে ঘটনার সময় পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহফুজুর রহমান ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সোহাগ উদ্দিনকে নিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেয়।

জানতে চাইলে লামচর ইউপি চেয়ারম্যান ফায়িজ উল্যা জিসান পাটওয়ারী বলেন, খবর পেয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিয়ে উপলক্ষে এক শ মেহমানের খাবারের আয়োজন ছিল। পরে গ্রামবাসীকে আপ্যায়ন করানো হয়। অভিভাবকরা প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে না দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন।  



সাতদিনের সেরা