kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

ধামরাইয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো অবৈধ ইটভাটা, করা হলো জরিমানা

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো অবৈধ ইটভাটা, করা হলো জরিমানা

ঢাকার ধামরাইয়ে ৯টি ইটভাটায় অভিযান চালিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে ৬টি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেওয়াসহ ৯ ভাটা মালিককে ৫৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় এবং একটি ভাটার মালিক অভিযানের সময় পালিয়ে যাওয়ায় নিয়মিত মামলা করা হবে বলে জানা গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ধামরাইয়ের জলসিন, কান্দাপাড়া, ডাউটিয়া ও কালামপুর এলাকায় পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জহিরুল ইসলাম তালুকদার, সহকারী পরিচালক মোসাব্বির হোসেন মোহাম্মদ রাজিব, পরিদর্শক ফাতেমাতুজ জোহরা প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন না মেনে আবাসিক এলাকা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাশে ইটভাটা স্থাপন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র নবায়ন না করায় এবং আবাদি জমির মাটি কাটার অনুমতি না থাকার অভিযোগে জলসিন এলাকার পিউর ব্রিকস, মা ব্রিকস, মা-স্টার ব্রিকস, কান্দাপাড়া জয়বাংলা ব্রিকসকে সাড়ে ৯ লাখ টাকা করে ৩৮ লাখ, ডাউটিয়া এলাকার এসএমবি-১ ব্রিকসকে ২ লাখ, এসএমবি-২ ব্রিকসকে ৬ লাখ, সান ব্রিকসকে ৬ লাখ ও কালামপুর বিবিসি ব্রিকসকে ৬ লাখ টাকা করে মোট ৯টি ভাটা মালিককে ৫৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে অবৈধ ৬টি ইটভাটা এসকাভেটর দিয়ে ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়ে সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।

ঢাকা জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জহিরুল ইসলাম তালুকদার বলেন, ৬টি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেওয়াসহ ৯ ভাটা মালিককে ৫৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় এবং হালিমা ব্রিকস নামে একটি ভাটার মালিক অভিযানের সময় পালিয়ে যাওয়ায় তার বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা করা হবে। এ ছাড়া ধামরাইয়ের প্রায় শতাধিক অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা