kalerkantho

সোমবার ।  ২৩ মে ২০২২ । ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২১ শাওয়াল ১৪৪৩  

মায়ের হাত থেকে যন্ত্রদানবের নিচে তৃষা

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২৫ জানুয়ারি, ২০২২ ২১:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মায়ের হাত থেকে যন্ত্রদানবের নিচে তৃষা

প্রতীকী ছবি।

মায়ের হাত ধরে চিকিৎসকের কাছে যাচ্ছিল তৃষা আক্তার (৮)। বাড়ি থেকে বেরিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পার হওয়ার সময় মায়ের হাত থেকে ছুটে যায় তৃষার হাত। এমন সময় বেপরোয়া মিনিবাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। আহত তৃষাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে স্থানীয়রা।

বিজ্ঞাপন

ততক্ষণে সব শেষ। হাসপাতালের আনার পর চিকিৎসক তৃষাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দক্ষিণ বাঁশবাড়িয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত তৃষা বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের হাজীপাড়া এলাকার নুর নবীর মেয়ে।

নিহতের ফুফু আলিয়া বেগম জানান, তৃষা দুই-তিন দিন ধরে জ্বরসহ শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিল। তাই তাকে সীতাকুণ্ড পৌর সদরে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাচ্ছিলেন তাঁরা। রাস্তা পার হওয়ার সময় দ্রুতগতিতে আসা মিনিবাসটি তৃষাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে তৃষা গুরুতর আহত হয়। তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বারআউলিয়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী নাজমুল হক। তিনি জানান, দুর্ঘটনায় আহত শিশুটি চমেক হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে দুর্ঘটনার পর মিনিবাসটি পালিয়ে যাওয়ায় চালককে আটক করা যায়নি।



সাতদিনের সেরা