kalerkantho

সোমবার ।  ২৩ মে ২০২২ । ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২১ শাওয়াল ১৪৪৩  

স্বামীর সঙ্গে বর্বরতা, চিঠিতে কারণ লিখে পালালেন স্ত্রী!

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি   

২৫ জানুয়ারি, ২০২২ ১৯:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বামীর সঙ্গে বর্বরতা, চিঠিতে কারণ লিখে পালালেন স্ত্রী!

রংপুরের মিঠাপুকুরে পরকীয়া সন্দেহে স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে দিয়েছেন স্ত্রী। আহত স্বামী সোলাইমান মিয়াকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে স্ত্রী পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন মিঠাপুকুর থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান।

বিজ্ঞাপন

 সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটা দিকে উপজেলার শিমুলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর অসুস্থ সোলাইমান মিয়া (২৪) ওই গ্রামের ফুলু মিয়ার ছেলে। তিনি ট্রাকচালকের সহকারী হিসেবে কাজ করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুই বছর আগে মাগুরার এক নারীর সঙ্গে সোলাইমানের মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গেলে জোরপূর্বক তাঁদের বিয়ে দেয় স্থানীয়রা। সেখানে কিছুদিন থাকার পর ছয় মাস আগে সোলাইমান তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি মিঠাপুকুরে আসেন। এক পর্যায়ে সোলাইমান পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ তোলেন স্ত্রী।

এদিকে সোলাইমান অভিযোগ তোলেন, তাঁর চেয়ে বয়সে বড় ওই নারীকে জোরপূর্বক বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়েছে। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে প্রায়ই দ্বন্দ্ব লেগে থাকত।

গতকাল সোমবার রাতের খাওয়া শেষে তাঁরা ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আড়াইটার দিকে স্বামী সোলাইমান মিয়ার বিশেষ অঙ্গ কেটে নিয়ে পালিয়ে যান স্ত্রী।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজু আহম্মেদ জানান, পালিয়ে যাওয়ার আগে ওই নারী একটি চিঠে লিখে গেছেন। চিঠিতে তাঁর পূর্বের সংসার নষ্টের জন্য বর্তমান স্বামী সোলাইমানকে দায়ী করেছেন।  

মিঠাপুকুর থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পলাতক স্ত্রী রেহেনা বেগমকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।



সাতদিনের সেরা