kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

বাঁশখালী পৌর মেয়র লাঞ্ছিতের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ১৮:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাঁশখালী পৌর মেয়র লাঞ্ছিতের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

চট্টগ্রামের বাঁশখালী পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিমুল হক চৌধুরীর ওপর হামলা ও লাঞ্ছিত করার ভিডিও ভাইরাল হবার ঘটনায় র‌্যাব ও পুলিশ পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হচ্ছেন মেয়রের দায়ের করা মামলার ১ নম্বর আসামি মৃত রহিম উল্লাহর ছেলে মো. সিরাজ (৩৫) এবং ৩ নম্বর আসামি মকবুল আহমদের ছেলে মিনারুল ইসলাম (৩৫)।

এজাহারের বাইরে সন্দেহজনক আসামি মো. বেলাল উদ্দিনসহ ৩  জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এজাহারনামীয় ২ আসামিকে আজ সোমবার সকালে কক্সবাজারের রামু থেকে র‌্যাব-৭-এর চৌকস দল অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করেছে।

বিজ্ঞাপন

এর আগের দিন বাঁশখালী থানার পুলিশ মো. বেলাল উদ্দিনকে তাঁর উত্তর জলদি নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে। মামলার এজাহার নামীয় অপর দুই পলাতক আসামি মৃত শাহ আলমের ছেলে মো. ইলিয়াছ এবং আব্দুল জলিলের ছেলে দুদু মিয়া।

চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭-এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার জানান, বাঁশখালী পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিমুল হক চৌধুরীর ওপর হামলাকারী দুই আসামিকে কক্সবাজারের রামু এলাকায় পলাতক থাকা অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়। অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

বাঁশখালী থানার ওসি মো. কামাল উদ্দিন বলেন, 'মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিমুল হক চৌধুরীর ওপর হামলার পর থেকে এমপি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী স্যার নিজেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীকে অনুরোধ করেছেন দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে। স্যারের নির্দেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এ পর্যন্ত ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। '

বাঁশখালীর এমপি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, 'কিছু স্বার্থান্বেষী লোক রাজনৈতিকভাবে হেয় করতে আমাকে জড়িয়ে ঘটনা ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করছে। মেয়রের ওপর হামলাকারীরা কখনো আমার দলের লোক ছিল না। '



সাতদিনের সেরা