kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

করোনায় চেয়ারম্যানের বিজয় উৎসব

তাড়াশ-রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি    

২৩ জানুয়ারি, ২০২২ ২১:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় চেয়ারম্যানের বিজয় উৎসব

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় সরকারি বিধি-নিষেধ অমান্য করে ৩ নম্বর ধুবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রাসেল সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। এতে রাতভর হাজারো মানুষকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাতিয়ে রাখেন।  

শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাতে মালতীনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ অনুষ্ঠান হয়।

জানা যায়, করোনা সংক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বাড়তে থাকায় দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার।

বিজ্ঞাপন

২১ জানুয়ারি থেকে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্কুল, কলেজ ও সমপর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। রায়গঞ্জ-তাড়াশ-সলঙ্গার (আংশিক) সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ মহোদয়ের শারীরিক অসুস্থতার কারণে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান স্থগিত করে।

কিন্তু সংসদ সদস্যের কথা অমান্য করে ধুবিল ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রাসেল রাতভর স্থানীয় শিল্পী ও নর্তকী দিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চালিয়ে যান।

স্থানীয় মালতীনগর গ্রামের রমজান আলী, ইউসুফ হাসান, ছোবাহন আলীসহ অনেক অভিভাবক অভিযোগ করেন,  করোনার সময়ে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও মিজানুর রহমান রাসেল হাজারো লোক জড়ো করে উচ্চ শব্দ ও অশ্লীল নৃত্য করেছে। এতে রাতভর এলাকার মানুষ ঘুমাতে পারেনি। শুধু তা-ই নয়, এ রকম অশ্লীল নৃত্যের তীব্র নিন্দা জানান তাঁরা।  

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম ভোলা সরকার বলেন, 'দেশে করোনা সংক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ সময় আমরা সরকারি দলের নেতাকর্মীরা যদি বিধি-নিষেধ না মানি তাহলে জনগণ কিভাবে মানবে। চেয়ারম্যান কাজটা ঠিক হয়নি। '

চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রাসেল 'আমি সন্ধ্যায় অনুষ্ঠান বন্ধ করতে বলেছিলাম' বলে ফোন কেটে দেন।

সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, 'খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে একবার বন্ধ করা হয়েছিল। পরে কী হয়েছে আমার জানা নেই। '



সাতদিনের সেরা