kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

চুরির অপবাদে শিশু নির্যাতন

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০২২ ১৯:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুরির অপবাদে শিশু নির্যাতন

রংপুর নগরীতে টাকা চুরির অপবাদে হাবিবা খাতুন নামে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মহানগর পুলিশের উপ সহকারী কমিশনার (ডিবি ও মিডিয়া) সাজ্জাদ হোসেন। এর আগে বুধবার সকালে আহত ওই ছাত্রীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত হাবিবা খাতুন কেরানীপাড়া এলাকার বাসিন্দা ভ্যানচালক হামিদুল ইসলামের মেয়ে।

বিজ্ঞাপন

সে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর কেরানীপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার সকালে প্রতিদিনের মতো ভ্যান নিয়ে বেড়িয়ে যান শিশুটির বাবা। আর তার মা অন্যের বাড়িতে কাজে ছিলেন। বিকেলে শিশু হাবিবাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় প্রতিবেশী ওষুধ ব্যবসায়ী আব্দুল বারী ও তার স্ত্রী। হাবিবা আব্দুল বারীর মেয়ে লাবিবার বান্ধবী। এক পর্যায়ে টাকা চুরির অপবাদে তাকে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে মারপিট করেন তারা। এতে সে গুরুতর আহত হলে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পরে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিবারের লোকজন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু হাবিবা জানায়, তাকে বান্ধবীর সঙ্গে দেখা করার কথা বলে ডেকে নিয়ে গিয়ে চুরির অপবাদ দিয়েছে। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে তাকে মারপিট করা হয়। তার বান্ধবী লাবিবার মা দুই হাত চেপে ধরেন আর লাবিবার বাবা দুই পায়ের ওপর উঠে মারপিট করেন।

হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. জায়ান হক জানান, হাবিবার অবস্থা আগের চেয়ে একটু ভালো। তবে শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আব্দুল বারীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

রংপুর মহানগর পুলিশের উপ সহকারী কমিশনার (ডিবি ও মিডিয়া) সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় শিশুটির মা আসমা বেগম একটি অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা