kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

অস্ত্র স্বর্ণালংকারসহ কেরানীগঞ্জে ৫ ডাকাত গ্রেপ্তার

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ০২:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অস্ত্র স্বর্ণালংকারসহ কেরানীগঞ্জে ৫ ডাকাত গ্রেপ্তার

ঢাকার কেরানীগঞ্জে অস্ত্র, স্বর্ণালংকারসহ আন্ত জেলা ডাকাত চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার  করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. রেজাউল, মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, মো. আজিজুল হক, মো. বশির পেদা, মো. কামাল হোসেন।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেন। শাহাবুদ্দিন কবির জানান, কেরানীগঞ্জের ঘাটারচরের বাসিন্দা শাহ আলমের দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন

তার জরুরি অপারেশনের জন্য বড় বোন নুরুন্নাহার টাকা নিয়ে যশোর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে আসে। ঢাকাগামী বাস নুরুন্নাহারকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন নতুন রাস্তার মোড়ে (সংযোগ সড়ক) নামিয়ে দেয়। শাহ আলম ও তার দুলাভাই আমির হোসেন বাবু নতুন রাস্তায় বোনকে রিসিভ করে। রাস্তায় কোনো গাড়ি না পেয়ে তিনজনই বাবুবাজার ব্রিজের দিকে হাঁটতে থাকেন। ঝিলমিল আবাসিক প্রকল্পের পাশ দিয়ে পাসপোর্ট অফিসের দিকে এগিয়ে যাওয়া মাত্রই আগে থেকে ওত পেতে থাকা সশস্ত্র ডাকাতদল তাদেরকে অস্ত্রের মুখে টেনে-হিচঁড়ে পার্শ্ববর্তী খালে নামিয়ে ঝিলমিল আবাসিক প্রকল্পের ভেতরে জঙ্গলে নিয়ে যায়।

সশস্ত্র ডাকাতদল তাদের বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে হাত-পা বেঁধে ফেলে। এ সময় ডাকাতদলটি তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা, বোনের পরিহিত স্বর্ণালংকার ও দুলাভাইয়ের গলার চেইন ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে শাহ আলম ও তার বোন-দুলাভাই একে অন্যের বাঁধা হাত খুলে ফেলেন এবং ৯৯৯-এ কল করে পুলিশের সাহায্য চান। তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং তাদেরকে উদ্ধার করে। পরবর্তী সময়ে এ ঘটনায় শাহ আলম বাদী হয়ে একটি ডাকাতির মামলা রুজু করেন।

তিনি আরো জানান, ওই ডাকাতি মামলার রহস্য উদ্ঘাটনে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা ও ডিবি পুলিশের যৌথ অভিযানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত পাঁচজনকে নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, ঢাকা মেট্রোর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। ডাকাতদের দেওয়া তথ্য মতে, লুণ্ঠিত স্বর্ণালংকার ক্রয়কারী তাঁতীবাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী জামালকে গ্রেপ্তার করা হয়।  
ডাকাতদের দেওয়া তথ্য মতে, ঝিলমিলের জঙ্গল থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত অনেক দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত ডাকাতদের নামে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।



সাতদিনের সেরা