kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

সিরাজগঞ্জে আ.লীগ-বিএনপির সংঘর্ষ

অস্ত্রসহ সেই যুবক গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৭:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অস্ত্রসহ সেই যুবক গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জ শহরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংঘর্ষে আগ্নেয়াস্ত্রসহ চিহ্নিত তিন আসামির আরো একজনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। রবিবার গভীর রাতে শহরের ধানবান্দি মহল্লার বিএল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।  

গ্রেপ্তার জনি হাজাম শহরের কোলগয়লা মহল্লার মৃত আব্দুল মান্নান হাজামের ছেলে। তিনি স্থানীয় যুবলীগ কর্মী বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।

বিজ্ঞাপন

আটকের পর তাঁর কাছ থেকে একটি পিস্তল এবং এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। সংঘর্ষে চিহ্নিত অস্ত্র এবং উদ্ধারকৃত অস্ত্র একই বলে দাবি করেছে পুলিশ।

এর আগে, ১২ জানুয়ারি রাতে শহরের কোলগয়লা মহল্লার মৃত শামসু খলিফার ছেলে সুমন খলিফাকে (২৪) একটি প্লাস্টিকের খেলনা পিস্তল ও পাঁচটি তাজা হাতবোমাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত বায়েজিত নামে আরেকজন এখনো পলাতক রয়েছেন।

ডিবি পুলিশের এসআই খোকন চন্দ্র সরকার জানান বলেন, 'ওই সংঘর্ষের পর ভাইরাল হওয়া পিস্তলের ভিডিওর সাথে উদ্ধারকৃত পিস্তলের মিল রয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে প্রতিপক্ষ বিএনপি নেতাকর্মীদের ভয়ভীতি দেখানো এবং ত্রাস সৃষ্টির জন্য পিস্তলটি প্রদর্শন করা হয়েছিল বলে আটক যুবলীগকর্মী জনি হাজাম জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানিয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। '

গত ৩০ ডিসেম্বর বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে শহরের ইসলামিয়া সরকারি কলেজ মাঠে সমাবেশ করে বিএনপি। ওই সমাবেশে যাওয়ার পথে সরকারি ডিগ্রি কলেজ সড়কে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষ চলাকালে তিন যুবককে পিস্তল প্রদর্শন করতে দেখা যায়।  



সাতদিনের সেরা