kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

পরিচয় পত্র নিয়ে জটিলতা

বেনাপোল বন্দর দিয়ে পণ্য রপ্তানি বন্ধ করল ভারত

বেনাপোল প্রতিনিধি   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৫:৫২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বেনাপোল বন্দর দিয়ে পণ্য রপ্তানি বন্ধ করল ভারত

বেনাপোলের বিপরীতে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে পণ্য রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সকাল থেকে ভারত থেকে আমদানি বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা। তবে ভারতে পণ্য রপ্তানি চালু রেখেছে বাংলাদেশ।

বাণিজ্য সম্পাদনে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) কার্ডবিহীন ট্রান্সপোর্ট ও সিঅ্যান্ডএফ সদস্যদের বন্দরে ঢুকতে না দেওয়ায় কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, একই দাবিতে গত শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভারত থেকে কোনো পণ্যবাহী ট্রাক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করেনি। দুদিন পর পর নানা সমস্যায় এ পথে রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বনগাঁ গুডস ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক বুদ্ধদেব বিশ্বাস জানান, এত দিন আমরা সংগঠনের পরিচয়পত্র নিয়ে পেট্রাপোল বন্দরে আমদানি-রপ্তানির কাজ করে আসছিলাম। শনিবার (১৫ জানুয়ারি) পেট্রাপোল বিএসএফ থেকে বলা হয় ভারতীয় কাস্টমস, বন্দর, সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ ও ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ স্বাক্ষরের পরিচয়পত্র ছাড়া কাউকে বন্দর এলাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। এ কারণে শনিবার আট ঘণ্টা বন্ধ থাকে আমদানি-রপ্তানি। পরে এক বৈঠকে আলোচনার পর পুনরায় চালু হয় আমদানি-রপ্তানি। আমরা সময় চাইলেও তারা আজ সোমবার (১৭ জানুয়ারি) পর্যন্ত সময় দেয়। দুই দিনের মধ্যে চারটি সংস্থা থেকে পরিচয়পত্র সংগ্রহ করাও কঠিন। সে কারণে বাধ্য হয়ে বাংলাদেশে রপ্তানি পণ্য বন্ধ করে দেওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই। সবার সাথে কথা বলে রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, হঠাৎ করে পেট্রাপোল বন্দরে নিরাপত্তায় নিয়োজিত বিএসএফ সদস্যরা সিদ্ধান্ত নেন কার্ডবিহীন কোনো ভারতীয় ট্রান্সপোর্ট ও সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ বন্দরে প্রবেশ করবে না। এতে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা বিঘ্ন ঘটায় শনিবার আট ঘণ্টা বন্ধ থাকে ভারত থেকে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম। আজ সোমবার আবারও একই দাবিতে রপ্তানি বন্ধ করে দেন ভারতীয় ট্রান্সপোর্ট শ্রমিকরা।

প্রতিদিন ভারত থেকে সাড়ে ৩০০ ট্রাক বিভিন্ন ধরনের পণ্য আমদানি ও ১৫০ ট্রাক পণ্য ভারতে রপ্তানি হয়ে থাকে। প্রতিদিন আমদানি পণ্য থেকে সরকারের ২০ থেকে ৩৫ কোটি টাকা পর্যন্ত রাজস্ব আয় হয়। যাত্রী যাতায়াত হয় দিনে ৬০০ জনের মতো।  

বেনাপোল স্থল বন্দর কর্তপক্ষের উপ-পরিচালক আব্দুল জলিল বলেন, 'এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। আমাদের এখানে কোনো হাত নেই। তার পরও আমদানি-রপ্তানি সচল রাখতে আমরা ভারতীয় বন্দরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছি। '



সাতদিনের সেরা