kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

গরু চুরি করে জবাই, গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৫ জানুয়ারি, ২০২২ ০১:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গরু চুরি করে জবাই, গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে ফুল বাবু নামের এক ব্যক্তির গরু চুরি করে জবাই করার সময় হাতেনাতে জনি (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে এলাকাবাসী। পরে এলাকাবাসী গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন কোন্ডা ইউনিয়নের বীর বাঘৈর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিবরণে এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃত জনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানীর আবুল কাশেমের ছেলে।

বিজ্ঞাপন

জনি চার বছর আগে জমি ক্রয় করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন বীরবাঘৈর এলাকায় একটি বাড়ি তৈরি করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে। সে এলাকাবাসীর কাছে বিভিন্ন সময়ে নিজেকে ডিবি পুলিশ, অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী কর্মকর্তা, কখনো বড় রাজনীতিবিদ পরিচয় দিত।

ফুল বাবু সন্ধ্যায় মাঠ থেকে গরু গোয়ালে নিয়ে যাওয়ার জন্য খোঁজাখুঁজি করলে না পেয়ে মসজিদের মাইকে হারানোর ঘোষণা দেয়। তখন স্থানীয় এক কিশোর তাকে জানায়, একটি গরু জনি ও তার কয়েকজন সহযোগী বাড়ির ভেতরে জবাই করতে নিয়ে গেছে। এমন খবর পেয়ে গরুর মালিক এলাকাবাসীদের সহায়তায় সেখানে গিয়ে জনিকে গরু জবাই করতে দেখেন। গরুর মালিক ফুল বাবু নিজের গরুটিকে শনাক্ত করে এবং জনিকে আটক করে। পরবর্তীতে গণপিটুনির দিয়ে জনিকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত খালেদুর রহমান জানান, এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে জবাইকৃত গরুর গোশতসহ জনিকে গ্রেপ্তার করি। জনি মূলত একজন প্রতারক। সে বিভিন্ন সময় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, রাজনৈতিক বড় নেতা পরিচয় দিয়ে থানায় এসে বিভিন্ন তদবিরের চেষ্টা করত। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে গরু চুরি করে জবাই করার কথা স্বীকার করেছে। জনির বাকী সহযোগীদেরকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। এ ঘটনায় ফুল বাবু বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।



সাতদিনের সেরা