kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

টাঙ্গাইলে মাদরাসা শিক্ষককে অপহরণ

মুক্তিপণের সূত্র ধরে আটক ৩ অপহরণকারী

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

২৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ২১:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুক্তিপণের সূত্র ধরে আটক ৩ অপহরণকারী

টাঙ্গাইলে এক মাদরাসা শিক্ষককে অপহরণকারী চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার বিকেলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব ১২, ৩নং কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃতরা হচ্ছেন শহরের পশ্চিম আকুরটাকুরপাড়া এলাকার মৃত আ. খালেক মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া (৩৩), আ. রাজ্জাক মৃধার ছেলে শাওন মৃধা (২৫) ও কচুয়াডাঙ্গা এলাকার নূর মোহাম্মদ আলীর ছেলে আব্দুল আল মামুন (২০)। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

র‌্যাব কমান্ডার জানান, গত ২১ ডিসেম্বর সাড়ে ৯ টায় একদল সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সংলগ্ন মাইক্রো স্ট্যান্ড হতে সাবালিয়া তানযীমুল উম্মাহ মাদরাসার একজন শিক্ষক খায়রুল ইসলামকে (৩৮) অপহরণ করে নিয়ে যায়। তার বাড়ি জেলার কালিহাতী উপজেলার ঘড়িয়া গ্রামে। পরে তার বড় ভাই র‌্যাব অফিসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে র‌্যাব অনুসন্ধান শুরু করে। অপহরণকারীরা বিভিন্ন স্থান পরিবর্তন এবং মুক্তিপণের বিষয়ে দেন দরবার চালায়। ২২ ডিসেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় র‌্যাব সদর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় অপহরণকারীরা টের পেয়ে রাবনা বাইপাস এলাকায় শিক্ষককে হাত, পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

র‌্যাব কমান্ডার আরো জানান, মূলত মুক্তিপণের টাকা বিকাশে লেনদেনের সময় অপহরণকারীরা তাদের জালে ধরা পড়ে।

এদিকে শিক্ষক খায়রুল ইসলাম জানান, অপহরণ চক্রের ৮/১০ জন সদস্য অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাকে এক নারীর সঙ্গে অশালীন ভিডিও এবং ছবি তুলে রাখে। অনেক মারপিট করেছে এবং মুক্তিপণে জন্য ৫ লাখ টাকা দাবি করে। পরে মাদরাসা শিক্ষক বৃহস্পতিবার বিকেলে টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশের তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। অন্য আসামিদের আটক করার চেষ্টা চলছে।



সাতদিনের সেরা