kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নন্দীগ্রামে আদিবাসীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ৭ পুলিশসহ আহত ১৫

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নন্দীগ্রামে আদিবাসীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ৭ পুলিশসহ আহত ১৫

বগুড়ার নন্দীগ্রামে উপজেলায় চোলাই মদ উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে আদিবাসীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ৭ পুলিশসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। পরে আদিবাসীদের আস্তানা থেকে পুলিশ ১৮ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করেছে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রামে বৃন্দাবনপাড়ায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয়রা জানায়, আগামী শনিবার তার দুই মেয়ে পাতা মাহাতো ও লতা মাহাতোর বিয়ে। বিয়ে উপলক্ষে সামাজিক রীতি অনুযায়ী বর পক্ষের জন্য বাড়িতে চোলাই মদ তৈরি করে রাখে। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের একটি দল তার বাড়িতে অভিযান চালায়।

এসময় আদিবাসীদের ঘর তল্লাশিকালে পুলিশকে বাধা দেওয়া হয়। একপর্যায়ে আদিবাসীরা ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশের ‌ওপর চড়াও হয়। এসময় আদিবাসী নারী-পুরুষ সংঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে আদিবাসী পল্লীর ৭-৮ জন নারী-পুরুষ আহত হন।

এছাড়া নন্দীগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল করিমসহ ৭ পুলিশ আদিবাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে এসআই রেজাউল করিমকে গুরুতর অবস্থায় বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপর ৬ পুলিশ সদস্য স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পরে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং সুজন মাহাতো নামের একজনকে আটক করে। এসময় জাম্বু মাহাতোর বাড়ি থেকে ১৮ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করে পুলিশ।

দাসগ্রামের আদিবাসী পল্লীর জাম্বু মাহাতো বলেন, পুলিশের মারপিটে আদিবাসীদের মধ্যে হরিদাস মাহাতো, ভক্তি রানী মাহাতো, অন্তরা মাহাতোসহ ৭-৮ জন আহত হন। আদিবাসীদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদ করছি।

নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, তাদের হেফাজত থেকে চোলাই মদ উদ্ধার করতে গেলে আদিবাসীরা পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে ৭ পুলিশ আহত হন। তাদের কাছ থেকে ১৮ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা