kalerkantho

রবিবার । ৯ মাঘ ১৪২৮। ২৩ জানুয়ারি ২০২২। ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

'নৌকার ভোট হবে প্রকাশ্যে, বিরুদ্ধে গেলেই পিটুনি'

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ১৬:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'নৌকার ভোট হবে প্রকাশ্যে, বিরুদ্ধে গেলেই পিটুনি'

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুল হাই আকন্দ।

'আগামী ২৬ তারিখের চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার ভোট হবে প্রকাশ্যে। টেবিলের ওপর সিল মারতে হবে সবাইকে। কোনো আবুল-তাবুল মার্কায় সিল মেরে দেশের ক্ষতি করতে দেওয়া হবে না। কেউ নৌকার বিরুদ্ধে গেলে কোমর থেকে পা পর্যন্ত পেটানো হবে।

বিজ্ঞাপন

' এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ি ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুল হাই আকন্দ।

শুক্রবার (০৩ ডিসেম্বর ) রাতে জেলার ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের পাথাইকান্দি বাজার এলাকায় নৌকার প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন সরকারের নির্বাচনি প্রচারণা সভায় গিয়ে আব্দুল হাই আকন্দ এসব কথা বলেন।  

তার বক্তব্যের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয়দের মাঝে সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।  

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের এমন কথায় স্থানীয় ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন আব্দুল হাই আকন্দ।

এর আগে, শুক্রবার রাতে উপজেলার পাথাইলকান্দি এলাকায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেউ

নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মতিন সরকারের নেতাকর্মীরা পাথাইলকান্দি বাজারে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। সেখানে প্রধান অতিথিদের বক্তব্য রাখেন কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ি ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুল হাই আকন্দ।

আব্দুল হাই আকন্দ এসময় আরো বলেন, ‘নৌকায় ভোট দিলে এলাকায় উন্নয়ন হবে। নৌকায় ভোট না দিলে উন্নয়ন হবে না। আবুল টাবুল মার্কায় কেউ ভোট দেয়ার চেষ্টা করবেন না। বক্তব্যে তিনি নিকরাইল ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাসুদকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে তাকে এলাকায় প্রবেশ করলে প্রতিহত করার হুমকি দেওয়া হয়। যারা নৌকা মার্কার বাইরে গিয়ে নির্বাচন করবেন তাদের পেটানো হবে। এক কেন্দ্রে যতগুলো ভোট আছে ততগুলো নৌকায় সিল পড়বে। অন্য কোন আবুল-তাবুল মার্কায় ভোট হবে না। নৌকায় ভোট হবে প্রকাশ্যে টেবিলের ওপর সিল মারতে হবে। নৌকা মার্কার ভোট গোপনে (আওলে) হবে না। পুলিশ প্রশাসন যেভাবে লাগে আমরা দেবো। ’

এ ব্যাপারে আব্দুল হাই আকন্দের মোবাইলে বারবার কল করলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।



সাতদিনের সেরা