kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সিঙ্গাইরে সেতুর নিচে যুবকের মরদেহ, পরিবারের দাবি হত্যা

সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ১৬:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিঙ্গাইরে সেতুর নিচে যুবকের মরদেহ, পরিবারের দাবি হত্যা

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে লিটন মিয়া (৩৬) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জামশা ইউনিয়নের গোলাইডাঙ্গা-বাস্তা এলাকার একটি সেতুর পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। নিহত লিটন মিয়া ওই এলাকার মৃত আহমদ আলীর ছেলে। পরিবারের অভিযোগ, পূর্বশত্রুতার জেরে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

বিজ্ঞাপন

থানা পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার  জামশা ইউনিয়নের গোলাইডাঙ্গা বাস্তা গ্রামের লিটন মিয়ার সঙ্গে ৫-৬ দিন আগে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে একই এলাকার তেলের মিলের মালিক গজিমুদ্দিনের ঝগড়া হয়। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে। এতে লিটন মিয়া ও তার ভাগ্নে ইমরানসহ ৫-৬ আহত হন। আহতরা সবাই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এ ঘটনায় গজিমুদ্দিনসহ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন লিটন মিয়া।

লিটন মিয়ার ভাই সুরুজ মিয়া বলেন, লিটন বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়। রাতে বাড়িতে না ফেরায় অনেক খোঁজাখুঁজি করে কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গোলাইডাঙ্গা ব্রিজের নিচে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়। ধারণা করছি, শত্রুতার জেরে গজিমুদ্দিন ও তার লোকজন শুক্রবার রাতে লিটনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে তার লাশ সেতুর নিচে ফেলে রেখেছে।       

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  সফিকুল ইসলাম মোল্যা জানান বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে নিহত লিটন মিয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা