kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

মেয়র আব্বাস কারাগারে, ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ১৮:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেয়র আব্বাস কারাগারে, ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার জেরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আাইনে করা মামলায় গ্রেপ্তার রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানা পুলিশ মেয়র আব্বাসকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এ হাজির করলে বিচারক শংকর কুমার তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক শাহাবুল ইসলাম জানান, মেয়রকে আদালতে হাজির করে তিনি ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। আদালত আবেদন গ্রহণ করলেও কোনো আদেশ দেননি। আগামী রবিবার রিমান্ড আবেদনের শুনানি কিংবা শুনানির দিন ধার্য্য হতে পারে। আদালত মেয়র আব্বাস আলীকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছেন। রিমান্ড মঞ্জুর হলে তাঁকে কারাগার থেকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে মেয়র আব্বাস আলীর আপত্তিকর বক্তব্যের অডিও ছড়িয়ে পড়লে তিনি আত্মগোপন করেন। তারপর বুধবার ভোরে রাজধানীর ঈশা খা হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। রাতে তাঁকে রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ সময় আব্বাসকে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল মমিনের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

পর পর দুই বার নৌকা নিয়ে মেয়র হওয়া আব্বাস জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও কাটাখালী পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ছিলেন। অডিও ছড়িয়ে পড়ার পর তাঁকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আর মেয়র পদ থেকে অপসারণের জন্য তাঁর প্রতি অনাস্থা প্রস্তাব এনেছেন পৌরসভার সব কাউন্সিলর। তাঁকে মেয়র পদ থেকে অপসারণ এবং দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকালেও কাটাখালী বাজারে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ব্যবসায়ী এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।



সাতদিনের সেরা