kalerkantho

বুধবার । ১২ মাঘ ১৪২৮। ২৬ জানুয়ারি ২০২২। ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

মাদারীপুরে ফলাফল ঘোষণা নিয়ে সংঘর্ষ, হাতবোমা বিস্ফোরণে আহত ৮

মাদারীপুর প্রতিনিধি   

২৮ নভেম্বর, ২০২১ ২৩:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাদারীপুরে ফলাফল ঘোষণা নিয়ে সংঘর্ষ, হাতবোমা বিস্ফোরণে আহত ৮

মাদারীপুরে ইউপি নির্বাচনে ফলাফল ঘোষণা নিয়ে স্বতন্ত্র দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৮ জন আহত হয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল রবিবার রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের ৭ ও ৮ নং ভোটকেন্দ্রের বাইরে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে সদর উপজেলার পশ্চিম রাস্তি গ্রামের ওয়াহেদ বেপারীর ছেলে লিটন বেপারী, পূর্ব রাস্তি গ্রামের আব্দুল গফুর সরদারের ছেলে মামুন সরদার, পাঁচখোলা গ্রামের সামাদ মাতুব্বরের ছেলে সোহাগ মাতুব্বরে নাম পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের ৭ নং ভোটকেন্দ্র (রাস্তি কমিউনিটি সেন্টার) ও ৮ নং ভোটকেন্দ্রে (পূর্ব রাস্তি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়) পাশাপাশি হওয়ায় দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বেল্লাল মোল্লা (মোটরসাইকেল মার্কা)ও রুবেল বেপারীর (চশমা মার্কা) কর্মী-সমর্থকরা ওই কেন্দ্রদুটির ফলাফলের জন্য বাইরে অপেক্ষা করতে থাকে। কিন্তু ফলাফল ঘোষণা হতে দেরি হওয়ায় উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে তারা বিজয়ী স্লোগান দিতে থাকে। এই অবস্থায় পরে ফলাফল ঘোষণা দেওয়ার জন্য উপজেলা চত্ত্বরের দিকে রওনা দেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা।  

এ সময় তাদের উপর চড়াও হয় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের লোকজন। পরে তাদের ভোটকেন্দ্রের ভেতর অবরুদ্ধ করে রাখে। একপর্যায়ে তারা হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে স্বতন্ত্র দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর অন্তত ৮জন কর্মী-সমর্থক আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবির সদস্যরা।

মাদারীপুর জেলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মশিউর রহমান জানান, রাস্তি এলাকা থেকে মারামারির বেশ কয়েকজন হাসপাতালে আসে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভর্তি করা হয়েছে। একজনের অবস্থা গুরুতর।  

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, মারামারির খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে। ফলাফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা থেকেই এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। প্রসঙ্গত, মাদারীপুর সদর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন হয় রবিবার।



সাতদিনের সেরা