kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ডিজিটাল ক্যাম্পাসে দুর্বল নেটওয়ার্ক

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি   

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ১৯:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডিজিটাল ক্যাম্পাসে দুর্বল নেটওয়ার্ক

সম্প্রতি দেশের সেরা ডিজিটাল ক্যাম্পাস হিসেবে 'ডিজিটাল ক্যাম্পাস অ্যাওয়ার্ড' পেয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পাস হিসেবে পরিচিতি থাকলে এখনো উচ্চমানের ইন্টারনেট সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাস ও হলসমূহে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) সেবা থাকলেও দুর্বল ফ্রিকুয়েন্সির কারণে নানা ভোগান্তিতে পড়ছেন তারা। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ই-লাইব্রেরিসহ বিভিন্ন অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রম থেকে পিছিয়ে রয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয় আইটি সূত্র জানায়, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে ১৫০টির মতো রাউটার রয়েছে। এতে শিক্ষার্থীরা সর্বনিম্ন ৫১২ কিলোবাইট থেকে সর্বোচ্চ ২ গিগাবাইট গতিতে ৫০টি কম্পিউটারের মাধ্যমে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে কাজ সম্পন্ন করতে পারবে।’ কিন্তু বাস্তবে তা সম্ভব হচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের মতে, সর্বোচ্চ ৩০ কিলোবাইটের বেশি ইন্টারনেট এক্সেস পাওয়া যাচ্ছে না।

তাদের অভিযোগ, পুরো ক্যাম্পাসে ওয়াই-ফাইয়ের সুবিধার কথা থাকলেও নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে তা সীমাবদ্ধ। খুব ধীরগতি সম্পন্ন এবং দুর্বল ফ্রিকোয়েন্সির কারণে প্রায়ই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ক্যাম্পাসের সর্বত্র ইন্টারনেট পাওয়ার কথা থাকলেও সব জায়গায় ইন্টারনেট না থাকায় শিক্ষার্থীদের সবসময় পোহাতে হয় নানা দুর্ভোগ। ক্লাস শিক্ষকদের দেওয়া অ্যাসাইনমেন্ট ও অনলাইনে বিভিন্ন বই খোঁজার জন্য শিক্ষার্থীরা নিজেদের খরচে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। ফলে শিক্ষার্থীদের পড়তে হচ্ছে বাড়তি অর্থের চাপে।

এ বিষয়ে ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী আশিক মাহমুদ আকাশ বলেন, ‘ক্যাম্পাসে নামমাত্র ওয়াই-ফাই সুবিধা রয়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকার পরও নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না।’

ছাত্রী হলের আবাসিক শিক্ষার্থী রাফসানা বিনতে রাশেদ দীপ্তি বলেন, ‘মেয়েদের হলগুলোতে শিক্ষার্থীর তুলনায় রাউটার এর সংখ্যা খুব কম। ইন্টারনেটের গতি এতো কম যে কোনো ধরনের ফাইল খোলা যায় না। এসব সমস্যা সমাধানে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে দ্রুত এগিয়ে আসা উচিত।’

কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক মো. মাছুম বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা কখনো আমাদেরকে নেট সমস্যার কথা জানাননি। অনেক সময় হল প্রভোস্টরাও আমাদেরকে সময়মতো জানায় না। যখন আমাদেরকে সমস্যার কথা জানানো হয় তখন সমাধান করে দেওয়া হয়।’



সাতদিনের সেরা