kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২৯ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন

প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যে ভরপুর মৌলভীবাজারের চা বাগান ও পাহাড়ি জনপদে ‘বেঙ্গল কনভেনশন হল হাফ ম্যারাথন ২০২১’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মৌলভীবাজার সাইক্লিং কমিউনিটি ও রানার্স ক্লাবের আয়োজনে এবং মৌলভীবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় ম্যারাথনে দেশ-বিদেশের প্রায় ৬০০ জন রানার অংশগ্রহণ করেন।

আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টায় মৌলভীবাজার পৌর মেয়র চত্তর থেকে নারী-পুরুষের অংশগ্রহণে একসাথে ২১ কিলোমিটার এবং ১০ কিলোমিটার দূরত্বের হাফ ম্যারাথন শুরু হয়। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মিছবাহুর রহমান।

১০ কিলোমিটারে অংশগ্রহণকারীরা গায়ে নীল রং টি শার্ট এবং ২১ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারীর গায়ে সবুজ রং টি শার্ট ছিল। ১০ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথন পৌর মেয়র চত্বরে থেকে শুরু হয়ে বর্ষিজোড়া ইকোপার্কা সড়ক হয়ে দেওড়াছড়া চা বাগানের ভেতর ‘একাত্তর বধ্যভূমি’ হয়ে মৌলভীবাজার জেলা স্টেডিয়ামে আসে। ২১ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথন একই স্থান ও একই সমেয়ে শুরু হয়ে বর্ষিজোড়া ইকোপার্কা সড়ক হয়ে দেওড়াছড়া চা বাগান পাড়ি দিয়ে ‘ছয়সিড়ি দিঘি’ হয়ে মৌলভীবাজার স্টেডিয়ামে আসে।

দুটি গ্রুপে ১০ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথনে ৩ জন নারী ও ৩ পুরুষ এবং ২১ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথনে ৩ জন নারী ও ৩ পুরুষসহ মোট বিজয়ী ১২ জনকে পুরষ্কার তোলে দেন পৌর মেয়র মো. ফজলুর রহমান। অনুষ্ঠানের শুরুতে উপস্থিত ছিলেন জেলা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী প্রত্যেককে মৌলভীবাজার জেলা ব্রান্ডিং ‘চা কন্যা’ ক্রেস্ট দেওয়া হয়।

আয়োজক কর্ণধার ইমন আহমদ জানান, ১০ কিলোমিটার ম্যারাথন (পুরুষ) রংপুরের সাজ্জাদ হোসেন স্নিগ্ধা ১ম হন। তাঁর ১০ কিলোমিটার পাড়ি দিতে সময় লাগে ৩৮ মিনিট। ১০ কিলোমিটার ম্যারাথন (নারী) সিলেটের নাছরিন বেগম ১ম হন। ১০ কিলোমিটার পাড়ি দিতে সময় লাগে ৫৫ মিনিট।

২১ কিলোমিটার ম্যারাথন (পুরুষ) নৌবাহীনীর সদস্য আসিব বিশ্বাস ১ম হন। তিনি ১ ঘণ্টা ১৭ মিনিটে ২১ কিলোমিটার পাড়ি দেন। ২১ কিলোমিটার ম্যারাথন (নারী) বগুড়ার মৌসুমি আক্তার এপি ১ম হন। ২১ কিলোমিটার পাড়ি দিতে তাঁর সময় লাগে ২ ঘণ্টা ৩ মিনিট। ১০ কিলোমিটার পথ ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট ও ২১ কিলোমিটার পথ ৩ ঘণ্টা ৩০ মিনিটের মধ্যে যে সকল রানার পৌঁছান তাদের সকলকে মৌলভীবাজার জেলা ব্রান্ডিং ‘চা কন্যা’ ক্রেস্ট দেওয়া হয়।



সাতদিনের সেরা