kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

রংপুরে শয়নঘরে গৃহবধূর লাশ, স্বামী আটক

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি   

২৯ অক্টোবর, ২০২১ ১৫:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরে শয়নঘরে গৃহবধূর লাশ, স্বামী আটক

রংপুরের তারাগঞ্জে শয়নঘর থেকে সালমা আক্তার পুটি (৪৫) নামের এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের মাদরাসাপাড়া গ্রাম থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের আব্দুল্লাহর দ্বিতীয় স্ত্রী ছিলেন সালমা আক্তার পুটি। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতের খবার খেয়ে স্বামীসহ সালমা আক্তার ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আড়াইটার দিকে আব্দুল্লাহর চিৎকার শুনে পরিবারের অন্য সদস্যরাসহ আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। ঘরে ঢুকে সালমা আক্তারের গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখেন তারা। 

এ সময় আব্দুল্লাহ তাদের জানান, প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হয়েছিলেন। কয়েক মিনিট পর ঘরে ফিরে স্ত্রীর গলা কাটা লাশ দেখে চিৎকার করেন তিনি।

নিহতের ছোট ভাই ভুট্টু মিয়া বলেন, আমার ভগ্নিপতি আব্দুল্লাহর প্রথম স্ত্রীর সংসারে আশরাফুল ইসলাম ফকির (৩৫) নামের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। গরু বিক্রির টাকা ও বসতভিটার জমি নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে তাদের সঙ্গে আমার বোনের মনোমালিন্য চলে আসছিল। আমার সন্দেহ আব্দুল্লাহ ও তার ছেলে ফকির মিলে আমার বোনকে হত্যা করেছে। 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) সিফাত-ই-রাব্বানী এবং রংপুর পিবিআই ও সিআইডি দল।

তারাগঞ্জ থানার ওসি ফারুক আহমেদ বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের স্বামীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা