kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদ

গণটিকার দিনে কেন্দ্র বন্ধ, তালা ভেঙে শুরু কার্যক্রম

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২৮ অক্টোবর, ২০২১ ১৮:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গণটিকার দিনে কেন্দ্র বন্ধ, তালা ভেঙে শুরু কার্যক্রম

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হয় ইউনিয়ন পর্যায়ে করোনার গণটিকা কার্যক্রম। তবে গণটিকার দিনে উপজেলার আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদ অফিস টিকাকেন্দ্র সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত তালাবদ্ধ ছিল। ফলে দুর্ভোগে পড়েন টিকা নিতে আসা শত শত নারী-পুরুষ। পরে কেন্দ্রের দরজায় ঝোলানো তালা ভেঙে ভিড় জমানো টিকাগ্রহীতাদের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। রাষ্ট্রীয় এ কার্যক্রমে ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বহীনতার বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

ভুক্তভোগী ও স্বাস্থ্যকর্মী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে ভিড় জমান টিকাগ্রহীতারা। সকাল ৯টায় টিকা কেন্দ্রে কার্যক্রম শুরুর কথা থাকলেও ইউনিয়ন অফিস তালাবদ্ধ পাওয়া যায়। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের কাউকে উপস্থিত পাওয়া যায়নি। পরে পরিষদের চৌকিদাররা এলে চাবি তাদের হাতে নেই বলে দাবি করেন।

এ সময় গণটিকায় অংশ নেওয়া সাধারণ মানুষজন উত্তেজিত হলে সকাল সাড়ে ৯টায় এক চৌকিদার হাতুড়ি দিয়ে দরজার তালা ভাঙলে টিকা কেন্দ্রে প্রবেশ করেন গণটিকায় সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীরা।

এ কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যসেবী ও সুপারভাইজার আঞ্জুমান আরা রুবী তালা ভেঙে টিকাদান কার্যক্রমের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর এক চৌকিদার এসে তালা ভেঙে অফিস খুলে দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদাল হোসেনকে পাওয়া যায়নি। তবে ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সহিদুর রহমান বলেন, ‘সকাল থেকে চাবি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে চৌকিদারকে দিয়ে তালা ভাঙা হয়।’

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশেকুল হক বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদের তালা ভাঙার বিষয়টি জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 



সাতদিনের সেরা