kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

সৌমিত্র চক্রবর্তী, সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম)    

২৮ অক্টোবর, ২০২১ ০৫:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে পারিবারিক মনোমালিন্যের জেরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন স্বামীও। এ ঘটনায় আশংকাজনক অবস্থায় স্বামীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাত পৌনে ৮টায় পৌর সদরের প্রেমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌর সদরের প্রেমতলা গ্রামের রামচন্দ্র সূত্রধরের মেয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রী জ্যোতিকা সূত্রধরের (২৩) সঙ্গে আনুমানিক দুই বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় চট্টগ্রামের বাঁশখালীর যুবক অভি ধরের (২৭)। এই বিয়েটি তাদের কারোর পরিবার মেনে না নেওয়ায় তারা চট্টগ্রামে একটি ভাড়া ঘরে বসবাস করছিলেন। অভি স্ত্রীকে আশ্বাস দিয়েছিলেন অল্প সময়ের মধ্যেই তার পরিবারকে বুঝিয়ে জ্যোতিকাকে নিজ বাড়িতে তুলে নেবেন। কিন্তু তার পরিবার মেনে না নেওয়ায় জ্যোতিকে বাড়িতে নিতে পারেনি।

এ নিয়ে জ্যোতির সঙ্গে অভির মনোমালিন্য চরম আকার ধারণ করলে জ্যোতি প্রেমিককে ছেড়ে নিজের বাপের বাড়িতে চলে আসেন। জ্যোতি চলে আসার পর থেকে অভি বার বার তাকে বুঝিয়ে আবারো ভাড়া বাসায় নিয়ে যেতে চেষ্টা করলেও জ্যোতি তাতে রাজি হননি। এক পর্যায়ে বুধবার সন্ধ্যায় অভি জ্যোতির বাপের বাড়িতে এসে তাকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়।

এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে অভি জ্যোতিকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত করেন এবং নিজেও নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। ঘটনার পর জ্যোতির পরিবার ও এলাকাবাসী দু’জনকেই উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জ্যোতিকে মৃত ঘোষণা করেন এবং অভির অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

জ্যোতির বাবা রামচন্দ্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক জানান, জ্যোতি ও অভি প্রেম করে পরিবারের অমতে বিয়ে করে ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন। কিন্তু অভি তাকে নিজ বাড়িতে তুলে না নেওয়ায় জ্যোতি তাকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন। বুধবার সন্ধ্যার পর অভি এখানে এসে জ্যোতিকে নিয়ে যেতে চেষ্টা করলে বাকবিতন্ডা হয়। এতে অভি জ্যোতিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে নিজেও আত্মঘাতী হতে নিজের পেটে নিজে ছুরিকাঘাত করলে এসব ঘটনা ঘটে। 

ওসি (তদন্ত) সুমন আরো বলেন, নিহত জ্যোতির লাশের সুরতহাল তৈরি করা শেষে ময়নাতদন্তের জন্য চমেকের মর্গে পাঠানো হবে। অভির অবস্থাও সংকটজনক। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 



সাতদিনের সেরা