kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-যুবদল সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

তাড়াশ-রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৭ অক্টোবর, ২০২১ ২২:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জে পুলিশ-যুবদল সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-যুবদলের সংঘর্ষে দুজন পুলিশ সদস্যসহ যুবদলের অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। আজ বুধবার (২৭ অক্টোবর) যুবদলের ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচির আগে শহরের ইবি রোডস্থ বিএনপির জেলা কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এই সংঘর্ষে জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবুসহ অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু নিজেই। অন্যদিকে এ ঘটনায় দুজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম।

যুবদলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সংঘর্ষে জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু, দপ্তর সম্পাদক মুসা আকন্দ, সদস্য, পারভেজ, শহর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল, সদস্য আব্দুল মতিন, শামীম, জুয়েল, সাব্বির, তামিম, মিলন, বাবু, সোহাগ, স্বপনসহ অনেকেই আহত হয়েছেন।

জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু বলেন, আজ যুবদলের ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। আমরা মিছিল ও স্লোগান না দিয়ে কয়েকজন করে দলীয় কার্যালয়ে যাচ্ছিলাম। কিন্তু পুলিশ এসে আমাদের প্রথমে ইসলামিয়া কলেজের সামনে এবং পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বাধা দেয় ও নেতা-কর্মীদের ওপরে আক্রমণ চালায়।

এতে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। পুলিশ এ সময় রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপের পাশাপাশি লাঠিচার্জ করলে আমাদের অন্তত অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়। এর মধ্যে শহর যুবদলের সদস্য আব্দুল মতিনকে রাবার বুলেটবিদ্ধ অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দাও জানান তিনি।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ যুবদলের নেতা-কর্মীরা শৃঙ্খলা ভঙ্গ না করার জন্য আহ্বান জানালেও তার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন এবং পুলিশের ওপর আক্রমণ করেন। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ও শৃঙ্খলা ধরে রাখতে কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। পাশাপাশি তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিতে লাঠিচার্জও করা হয়। এ ঘটনায় দুজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা