kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

নরসিংদীর চরাঞ্চলে নির্বাচনী সহিংসতায় দুজন গুলিবিদ্ধ

নরসিংদী প্রতিনিধি   

২৬ অক্টোবর, ২০২১ ২০:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নরসিংদীর চরাঞ্চলে নির্বাচনী সহিংসতায় দুজন গুলিবিদ্ধ

নরসিংদীর চরাঞ্চলের আলোকবালীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার দুপুরে আলোকবালী ইউনিয়নের সাতপাড়া গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সওগাতুল আলম সংঘর্ষের ঘটনা স্বীকার করলেও তাৎক্ষণিকভাবে গুলিবিদ্ধ হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করতে পারেননি।

পুলিশ, চিকিৎসক ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আলোকবালী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন সরকার দিপু ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুল্লাহর সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুইজনই দলীয় মনোনয়ন চান। বর্তমান চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন সরকার দিপু দলীয় মনোনয়ন পেলেও আসাদুল্লাহ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে আসাদুল্লাহ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিলে তার সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হয়ে দেলোয়ার সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়। এতে সাতপাড়া গ্রামের মৃত সুরুজ খানের ছেলে শাহা আলম মিয়া (৪৫) ও মৃত ফজল মিয়ার ছেলে মো. কাইয়ুম (৩০) গুলিবিদ্ধ হয়। আহত অবস্থায় তাদেরকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের শরীর থেকে গুলি বের করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেন।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক নাদিরুল আমিন বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুইজনকে হাসপাতালে আনা হয়। এ সময় কাইয়ুম নামে একজনের বাম কাঁধ থেকে ও শাহালম নামে অপরজনের বাম হাত থেকে একটি করে গুলি বের করা হয়। পরে তাদের চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সওগাতুল আলম জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়ায়। খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। কেউ গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে কী না তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। এ ঘটনায় কোনো পক্ষ অভিযোগ করেনি।



সাতদিনের সেরা