kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

'তিস্তা মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের চেষ্টা চলছে'

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

২২ অক্টোবর, ২০২১ ১৫:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'তিস্তা মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের চেষ্টা চলছে'

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, ‘তিস্তা নদীর ভাঙন স্থায়ীভাবে প্রতিরোধ ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে সরকার তিস্তায় মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের চেষ্টা করছে। এই প্রকল্পের ডিজাইন ও প্রজেক্ট প্রফাইল শেষ হয়েছে। এটি অনেক বড় প্রজেক্ট। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য আন্তরিকভাবে চেষ্টা চালাচ্ছেন। কবে নাগাদ এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে তা বলা যাচ্ছে না। তবে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে তিস্তাপারের মানুষের আর দুর্দশা থাকবে না।’

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সকালে কুড়িগ্রামের রাজারহাটের গতিয়াশাম এলাকায় তিস্তা নদীর ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, উজানে ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ায় কুড়িগ্রামসহ চারটি জেলায় আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। সরকার বন্যার্ত ও ভাঙনকবলিতদের দুর্দশা লাঘবে কাজ করে যাচ্ছে। চারটি জেলার প্রতিটিতে ৫০ মেট্রিক টন চাল, পাঁচ লাখ টাকা, চার হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, পশুখাদ্যের জন্য আরো দুই লাখ টাকা ও ১০০ বান্ডেল করে ঢেউটিন বরাদ্দ করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে বন্যার্ত ও নদীভাঙনের শিকার প্রতিটি পরিবারের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয় সরিষাবাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল ও চিনিসহ ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন তিনি। এ সময় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য দেন, কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. পনির উদ্দিন আহমেদ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহসীন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম, পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাফর আলী, রাজারহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ সোহরাওয়ার্দী বাপ্পি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরে তাসনীম  ও ঘড়িয়ালডাঙা ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ কর্মকার।



সাতদিনের সেরা