kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ঈশ্বরগঞ্জের ৩ যুদ্ধাপরাধী গ্রেপ্তার

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২১ অক্টোবর, ২০২১ ২৩:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈশ্বরগঞ্জের ৩ যুদ্ধাপরাধী গ্রেপ্তার

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি বাজার থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে যুদ্ধাপরাধী মো. তারা মিয়াকে (৭০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় চিহ্নিত রাজাকার থাকলেও এত দিন তিনি ঢাকায় থেকে পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি নিয়ে ফ্ল্যাট বাড়ি ছাড়াও প্রতি মাসে সাকুল্যে ৪৫ হাজার টাকা ভাতা তুলতেন। তারা মিয়া ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি ইউনিয়নের ইঠাউলিয়া গ্রামের মৃত শাহনেওয়াজের ছেলে। 

স্থানীয় সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু হলে স্থানীয় লতিফ মাস্টারের পরিবার বাদী হয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ করেন। তদন্ত শেষে ঘটনার সত্যতা পেয়ে গত সপ্তাহে তারা মিয়ার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে পুলিশ তাকে গতকাল গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদের মিয়া বলেন, তারা মিয়ার নামে ট্রাইব্যুনাল থেকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকাল বিকেলে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

এদিকে তারা মিয়াকে গ্রেপ্তারের পর বিকেলে ও সন্ধ্যায় আরো দুজন যুদ্ধপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বিকেল ৪টার দিকে ঈশ্বরগঞ্জ থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে আঠারবাড়ি কালিয়ান গ্রামের মৃত মেফর আলীর ছেলে রাস্তুম আলীকে (৮১)। সন্ধ্যার দিকে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানা ও ডিবি পুলিশ শহরের এবি গুহ রোডের নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে ঈশ্বরগঞ্জের সোহাগী বাজারের মৃত সৈয়দ হোসেন আহম্মেদের ছেলে মো. মোস্তাফিজুর রহমানকে (৭২)। 

ঈশ্বরগঞ্জ ও কোতোয়ালি থানার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ধৃত আসামিরা যুদ্ধাপরাধী। তাদের নামে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থায় ২০২০ সালে অভিযোগ করা হয়। যুদ্ধাপরাধের সত্যতা পাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।



সাতদিনের সেরা