kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

শ্রীনগরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু, মা-কন্যার অবস্থা গুরুতর

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি    

১৯ অক্টোবর, ২০২১ ১১:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রীনগরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু, মা-কন্যার অবস্থা গুরুতর

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কুকুটিয়া ইউনিয়নের পূর্ব মুন্সীয়া গ্রামে সোমবার রাত ৯টার দিকে একটি ভবনে তৃতীয় তলায় অগ্নিকাণ্ডে আয়াস মৃধা (২) নামে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। নিহতের মা দগ্ধ খাদিজা আক্তার মিম (২২) ও বোন আয়সা আক্তারকে (৪) গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। অগ্নিদগ্ধ খাদিজা আক্তার মিম কুকুটিয়া ইউনিয়নের ঝাপুটিয়া গ্রামের আব্দুল জলিল বেপারীর কন্যা।

শ্রীনগর থানার এসআই জিয়া উল ইসলাম জানিয়েছেন, প্রথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছে মশাল কয়েল থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে। ঘটনার সময় ওই দুই শিশুর পিতা বাপ্পি মৃধা বাড়ির পাশে মুরগির খামারে কাজ করছিলেন।

শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত অফিসার মো. মাহফুজ রিবেন জানান, ভবনটির তৃতীয় তলায় বাপ্পি যে ঘরে থাকতেন সেখান থেকে ধোঁয়া আসতে দেখেন প্রতিবেশীরা। পরে ভবনের দরজা ভেঙে মা-সহ শিশু সন্তানদের বাইরে আনা হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণেও আনা হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে আসেন। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান তারা। নিহতের লাশ বাড়িতেই রাখা হয়েছে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আগুনের বিষয়টি রহস্যজনক। এসি বিস্ফোরণের কোনো চিহ্ন নেই। কয়েল থেকে আগুন লাগলে নীচ থেকে উপরের দিকে যেতো। কিন্তু আগুন ওপর থেকে নীচের দিকে ছড়িয়েছে বলে বিষয়টি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রাতেই বার্ন ইউনিটে উপস্থিত হন ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবির ও কুকুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবুল হোসেন বাবু। গোলাম সারোয়ার কবির জানান, কন্যা শিশুটিকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন তার শ্বাসনালী পুড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের মোবিলাইজিং অফিসার দেওয়ান আজাদ হোসেন জানান, দগ্ধ মা ও কন্যার অবস্থা আশঙ্কাজনক। চিকিৎসক বার্ন ইউনিটে রেফার্ড করেন।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব নাথ ও শ্রীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। এখনও সঠিক কারণ জানা যায়নি।



সাতদিনের সেরা