kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

দেবরের বিরুদ্ধে ভাবীর ধর্ষণ মামলা, সাক্ষী আসামির বাবা

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০২১ ২১:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেবরের বিরুদ্ধে ভাবীর ধর্ষণ মামলা, সাক্ষী আসামির বাবা

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় দেবরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। এ রকম ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নের সূর্যোগ গ্রামে। রবিবার দিবাগত রাতে গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে থানায় মামলাটি করেন। পুলিশ রাতেই মামলার একমাত্র আসামি মো. রাজন ফকিরকে (২৪) গ্রেপ্তার করেছে।

আজ সোমবার ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ঘটনার শিকার গৃহবধূর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

থানা ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার রাতের খাবার খেয়ে তিন সন্তানকে নিয়ে নিজেদের টিনের ছাপড়া ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ। তার স্বামীও পরিবারের সদস্যদের সাথে খাওয়া দাওয়া শেষ করে পাশের একটি মাজারে গানের অনুষ্ঠান শুনতে যান। রাত আনুমানিক একটার দিকে গৃহবধূর আপন দেবর মো. রাজন ফকির ঘরে ঢুকে অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। ভোর রাতে গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে ফিরে স্ত্রীকে অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় পড়ে থাকতে দেখেন। কিছুটা সুস্থ করে তোলার পর এক পর্যায়ে গৃহবধূ তার স্বামীকে ধর্ষণের কথা জানান। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত রাজনের বাবা ও ভুক্তভোগী গৃহবধূর শ্বশুরকে স্বাক্ষী রাখা হয়েছে। অভিযুক্ত রাজন ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। তিনি সম্প্রতি ছুটিতে গ্রামের বাড়ি এসেছিলেন।

মামলা ও আসামি গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার উপ পরিদর্শক মো. আব্দুর রহমান জানান, মামলার একমাত্র আসামি গৃহবধূর দেবর মো. রাজনকে মামলার পরপরই নিজ বাড়ি থেকে  আটক করা হয়েছে। সোমবার আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।



সাতদিনের সেরা