kalerkantho

সোমবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৯ নভেম্বর ২০২১। ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

ছয় বছর পর ছেলের মতো বাবাকেও হত্যা করল প্রতিপক্ষরা

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০২১ ০২:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছয় বছর পর ছেলের মতো বাবাকেও হত্যা করল প্রতিপক্ষরা

ছাতকে ভূমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ছেলের মতো বাবাকেও হত্যা করল প্রতিপক্ষরা। প্রায় ৬ বছর আগে স্কুলছাত্র ছেলেকে হত্যা করেছিল তারা। ছেলে হত্যা মামলা আপস না করায় পিটিয়ে হত্যা করা হয় বাবাকে এমনটি দাবি করেছেন নিহতের অপর ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামে।

জানা যায়, বনগাঁও গ্রামের বাতির আলীর সঙ্গে একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরে ভূমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। গত (১১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় স্থানীয় ইছামতি বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সময় সিরাজুল ইসলাম তার লোকজন নিয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে বাতির আলীকে (৬০)।

প্রতিপক্ষের লোহার রডের আঘাতে বাতির আলীর দুটি পা ও হাতের হাড় ভেঙে যায়। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রায় চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাতির আলী মারা যান।

নিহতের ছেলে লাল মিয়া জানান, সিরাজুল ইসলামের লোকজন ২০১৫ সালের (২১ নভেম্বর) সকালে তার ছোট ভাই হেলাল উদ্দিন (১৫)কে পিটিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় তার বাবা বাতির আলী বাদী হয়ে ২১ জনকে আসামি করে ছাতক থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে।

ওই মামলা আপস না করায় ক্ষুব্ধ আসামিরা তার বাবাকেও হত্যা করেছে। রাজনৈতিক দল পরিবর্তন করে সরকারি দলে প্রবেশ করে সিরাজুল ইসলাম বর্তমানে দাপটের সঙ্গে একের পর এক অপরাধ করে যাচ্ছে।

সিরাজুল ইসলাম জানান, তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ বাতির আলীর ছেলেরা করেছে তা সঠিক নয়। এসবের সঙ্গে তার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। 

ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, বাতির আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় (১৪ অক্টোবর) রাতে মারা গেছেন। বিষয়টি আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা