kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ কার্তিক ১৪২৮। ২৬ অক্টোবর ২০২১। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

নিজ মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর বাবুলের নারাজি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৫ অক্টোবর, ২০২১ ০২:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিজ মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর বাবুলের নারাজি

স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার পর পাঁচলাইশ থানায় করা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর আদালতে নারাজি আবেদন করেছেন সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার। চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম মেহনাজ রহমানের আদালতে এই আবেদন জমা দেওয়া হয়। আদালত আগামী ২৭ অক্টোবর বাবুল আক্তারের উপস্থিতিতে শুনানির দিন ধার্য করেছেন।

এদিকে চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতে এ হত্যা মামলার আসামি এহতেশামুল হক ভোলা জামিন আবেদন শুনানিতে অংশ না নিয়ে সময়ের আবেদন করেন। আদালত সময়ের আবেদন নামঞ্জুর করে ভোলার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

ভোলার সময়ের আবেদন নামঞ্জুর হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর ফখরুদ্দিন চৌধুরী বলেন, মিতু হত্যা মামলার আসামি ভোলা উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিন পেয়েছিলেন। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী তিনি মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার শুনানির দিন ধার্য ছিল। ধার্য তারিখে ভোলা আদালতে হাজির না হয়ে সময়ের আবেদন করেন। এ সময় আদালতে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জোরালো বিরোধিতা করার পর আদালত সময়ের আবেদন নামঞ্জুর করে আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য পরোয়ানা জারি করেন।

এদিকে মিতু হত্যা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের শুনানির পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী আদালতে হাজির হন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা। এই পর্যায়ে বাবুল আক্তারের পক্ষে আদালতে নারাজি আবেদন দাখিল করেন তাঁর আইনজীবী শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে জিইসির মোড় এলাকায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাত ও গুলিতে মারা যান মিতু। ওই ঘটনায় তৎকালীন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার পাঁচলাইশ থানায় হত্যা মামলা করেন। প্রায় পাঁচ বছর তদন্ত শেষে সেই মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় পিবিআই। গত ১২ মে নতুন করে একটি হত্যা মামলা করে বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করা হয়। বাবুল আক্তার এখন ফেনী কারাগারে বন্দি রয়েছেন।



সাতদিনের সেরা