kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্কুলছাত্রীকে ভিআইপি রেস্টহাউজে নিয়ে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

৮ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্কুলছাত্রীকে ভিআইপি রেস্টহাউজে নিয়ে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশনের রেস্টহাউজের টয়লেটে হাত-পা বেঁধে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পলাতক রেল কর্মচারী মাহমুদুল হাসান সাগরকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। শুক্রবার ভোরে নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার ঝাউয়াইল গ্রাম তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযুক্ত সাগর তার এক দূর সম্পর্কের চাচার বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন।

গ্রেপ্তার সাগর রেলওয়ের প্রকৌশল বিভাগের চতুর্থ শ্রেণির অস্থায়ী কর্মচারী ও শহরের পূর্ব তারাপাশা এলাকার মো. আব্দুল জলিলের ছেলে।

জানা গেছে, পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীটি সম্পর্কে সাগরের খালাতো বোন হয়। বন্ধুর জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কথা বলে ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর তাঁকে কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশনে নিয়ে যান সাগর। পরে তাকে কৌশলে স্টেশনের দ্বিতীয় তলায় ভিআইপি রেস্টহাউজে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে হাত-পা বেঁধে বাথরুমে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন সাগর। রাত ১০টার দিকে মেয়েটির চিকৎকার শুনে পুলিশ ও স্টেশনের লোকজন দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় সাগর জানালা দিয়ে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় ওইদিনই রাতে যৌন নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর বড়ভাই বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে থানায় সাগরকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

র‌্যাব-১৪, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার এম শোভন খান জানান, চাঞ্চল্যকর এ ধর্ষণের ঘটনার পর পরই র‌্যাব অভিযুক্তকে ধরতে তৎপরতা শুরু করে। শুক্রবার আসামির অবস্থান নিশ্চিত হয়ে নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা উপজেলার ঝাউয়াইল গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছেন তিনি। সাগরকে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার জয়নাল মিয়া বলেন, এরই মধ্যে অভিযুক্ত কর্মচারিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে রেলের নিজস্ব একটি কমিটিও কাজ করছে।



সাতদিনের সেরা