kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দম ফেলার সময় নেই আমতলীর প্রতিমা শিল্পীদের

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দম ফেলার সময় নেই আমতলীর প্রতিমা শিল্পীদের

বরগুনার আমতলীতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা আগামী ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মা দুর্গার আগমন উপলক্ষে আমতলীর সকল পূজামন্ডপে তৈরি করা হচ্ছে মা দুর্গার প্রতিমা। প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা তৈরির কারিগররা।

সময় যতই সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ততই সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে দেখা গেছে পূজা উৎসবের প্রস্তুতি। আমতলীর পূজামন্ডপ গুলোতে চলছে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ। খড়, বাঁশ, সুতলি ও মাটি দিয়ে প্রতিমা তৈরির কাজও একেবার শেষের দিকে। প্রতিমাগুলোর সৌন্দর্য্য বর্ধনের জন্য তৈরি করা হচ্ছে মাটির বাহারি নকশা। প্রতিমাগুলো একটু শুকালেই দেওয়া হবে রং তুলির আচর।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মতে, মা দুর্গা চলতি বছরের ১১ অক্টোবর ঘোটকে (ঘোড়ায়) চড়ে মহাষষ্ঠীর দিনে পৃথিবীতে আসবেন। মহিষ অসুরকে বধ করার মাধ্যমে পৃথিবী থেকে সকল দুর্গতিনাশ করে ১৫ অক্টোবর দশমির মহাপ্রলয়ের দিনে দোলায় চড়ে আবার স্বর্গে ফিরে যাবেন। আসন্ন দুর্গা পূজাকে ঘিরে আমতলীর সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে বইছে উৎসবের আমেজ।

আমতলী উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ১৩টি পূজা মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। তবে এ বছর মহামারি করোনার প্রভাবে সীমিত আকারে পূজা-অর্চনা হবে বলে জানান আয়োজকরা।

আমতলী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাড. হরিহর চন্দ্র দাস মুঠোফেঅনে বলেন, মহামারি করোনায় সরকারের দেওয়া সকল নিয়ম কানুন ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবার উপজেলার ১৩টি মন্ডপে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। ১৫ অক্টোবর দশমীর মহাপ্রলয়ের দিনে রাত ৮টায় প্রতিমা বিসর্জনের সময়ও নির্ধারণ করা হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার মুঠোফোনে বলেন, আসন্ন দুর্গাপূজায় আমতলী উপজেলায় ১৩টি পূজামন্ডপে অনুষ্ঠিত হবে। পূজামন্ডপ গুলোতে সার্বক্ষণিক পুলিশ মোতায়েন থাকবে ও কঠোর নিরাপত্তা বলয়ে গড়ে তোলা হবে। 



সাতদিনের সেরা