kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিধবা নারীকে ধর্ষণ ও লুটপাটে গ্রেপ্তার ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিধবা নারীকে ধর্ষণ ও লুটপাটে গ্রেপ্তার ৪

গ্রেপ্তারকৃত ৪ জন

খুলনায় এক বিধবা নারীকে ধর্ষণ ও লুটপাটের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার বিকেলে তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এরআগে খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালী ইউনিয়নের কালুয়া দক্ষিনপাড়া গ্রামের পয়ত্রিশোর্ধ্ব বিধবার দ্বায়েরকৃত মামলায় আটককৃতরা ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, ওই বিধবা তার ১৩ বছরের শিশুপুত্রকে নিয়ে ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে প্রতিদিনের ন্যায় খাওয়া-দাওয়া শেষ করে নিজ বাড়ীতে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে রাত ২টার দিকে মুখোশ পরা ৪ ব্যক্তি ঘরে ঢুকে স্টিলের বাক্স খুলে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট করে। যাওয়ার সময় ৩ জন বিধবা ওই নারীকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় পরের দিন ভিকটিম নারী বাদী হয়ে থানায় ৪ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে মামলা করে। ইতোমধ্যে ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এজাজ শফী জানান, ওই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাতভর অভিযান চালিয়ে কয়রার বিভিন্ন স্থান থেকে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন, পাশ্ববর্তী কয়রা উপজেলার আমাদী গ্রামের শেখ জিয়াদ আলীর ছেলে ভাটা শ্রমিক ও পোনা ব্যবসায়ী শেখ অহিদুল ইসলাম (২৮), একই এলাকার মৃত অহেদ আলীর ছেলে মটরসাইকেল চালক রাকিবুল ইসলাম (২৬), শেখ খলিলুর রহমানের ছেলে বেকারী কর্মচারী মোনায়েম (২৫) ও পাইকগাছা উপজেলার মৌখালী গ্রামের মৃত ইউসুফ ঢালীর ছেলে ফেরদাউস ঢালী (৫১)। আটককৃতরা সিনিয়র পুলিশ সুপার ডি-সার্কেল সাইফুল ইসলামের নিকট অপরাধের কথা স্বীকার করেছে বলে তিনি জানান।



সাতদিনের সেরা