kalerkantho

শুক্রবার । ৬ কার্তিক ১৪২৮। ২২ অক্টোবর ২০২১। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ক্যান্সারে মৃত্যুশয্যায় সংবাদপত্র বিক্রেতা খোকন

বামনা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্যান্সারে মৃত্যুশয্যায় সংবাদপত্র বিক্রেতা খোকন

বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের হাজারবিঘা গ্রামের বাসিন্দা সংবাদপত্র বিক্রেতা খোকন তিলে তিলে ক্ষয়ে যাচ্ছে। দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সার তার জীবনের পরাজয় এনে দিয়েছে। ছোট ছোট তিন শিশুপুত্র আর অসহায় স্ত্রীর চোখের সামনে তিল তিল করে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন খোকন।

জানা গেছে, কিছুদিন পূর্বেও বরগুনা শহরের অলিগলিতে ঘুরে ঘুরে সংবাদপত্র বিলি করে জীবীকা নির্বাহ করতেন খোকন। বছর খানেক আগে তার ক্যান্সার ধরা পড়ে। চেয়ে চিন্তে কিছু টাকা যোগাড় করে একবার তাকে কেমো দিয়েছিলেন স্ত্রী সাহিদা। পরে আর হয়নি। ছোট ছোট তিন ছেলের খাবার জোটানোই অসম্ভব ব্যাপার। সেখানে কেমোর টাকা কে দেবে সাহিদাকে?

খোকন-সাহিদার বড় ছেলে নাজমুলের বয়স ১১ বছর। ২৫ পাড়া কোরআনের হাফেজ সে। বরগুনার জান্নাতুল বাকী মাদরাসায় এখনও চলছে তার হাফেজি লেখাপড়া। মাসে তিন হাজার টাকা বেতন দিতে হয় তার। মেজ ছেলে তানভিনের বয়স ৬ বছর। আর ছোট ছেলে শাফির বয়স সবে দুই বছর।

একদিকে ক্যান্সার আক্রান্ত বেহুশ স্বামী। আরেকদিকে ছোট ছোট অসহায় তিন শিশুর ক্ষিধের জ্বালা। অনোন্যপায় এখন সাহিদা। সদর উপজেলার হাজারবিঘা গ্রামে পিতার এককাঠার ভিটেয় একটি টিনের খুপড়িতে কোনোরকমে সাহিদা-খোকনের বসবাস।

সাহিদা-খোকনের তিন শিশুপুত্রের লেখাপড়ার জন্যে, সাহিদার ভবিষ্যতের জন্যে,  স্বচ্ছল ব্যক্তিবর্গের কাছে সহযোগিতার আবেদন জানিয়েছেন খোকনের সহকর্মী বরগুনার সংবাদপত্র বিক্রেতা সমিতির অসহায় সদস্যরা।

অসহায় সাহিদা জানান, স্বামীর কিছু হয়ে গেলে কিভাবে তিনি তিন সন্তান নিয়ে বাঁচবে? স্বামীর চিকিৎসায় ইতিমধ্যে সম্বল যেটুকু অবশিষ্ট ছিল তা শেষ। তার সন্তানদের ভবিষ্যত এখন অনিশ্চত। তাই সমাজের বিত্তবানের কাছে স্বামীর চিকিৎসা ও সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য সহায়তা চেয়েছেন। সাহিদার কোনো ব্যাংক হিসাব না থাকায় তাকে সহায়তা পাঠানোর একমাত্র মাধ্যম তার ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বর। বিকাশ পার্সোনাল নম্বরটি হলো ০১৩১০৬৬৮৬৯৭। কোনো হৃদয়বান স্বচ্ছল ব্যক্তি নগদ সহযোগিতা পাঠাতে চাইলে এখানে পাঠাতে পারবেন। 



সাতদিনের সেরা