kalerkantho

শুক্রবার । ৬ কার্তিক ১৪২৮। ২২ অক্টোবর ২০২১। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় গেলেন স্বামী

ঠাকুরগাঁও (রানীশংকৈল) প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০২১ ১৪:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় গেলেন স্বামী

রোকসানা বেগমকে (৫৫) নামাজ পড়তে বলায় স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া বাধে। এরপর স্বামী-স্ত্রীর তর্কের একপর্যায়ে পাশে থাকা শাবল দিয়ে স্ত্রীর মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলে মারা যান স্ত্রী। পরে নিজেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন স্বামী হাবিবুর রহমান। হাবিবুর রহমান হোসেনগাঁও একাকার মৃত আসির উদ্দিনের ছেলে।
 
আজ বুধবার (৬ অক্টোবর) সকালে ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈল উপজেলার হোসেনগাঁও গ্রামে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রানীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ ইকবাল।
 
ওসি জানান, সকালের দিকে হাবিবুর থানায় এসে নিজে আত্মসমর্পণ করেন এবং তার জবানবন্দিতে জানান, নামাজ পড়া নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে প্রায় সময় তার কথা-কাটাকাটি হতো। আজ ফজরের নামাজ পড়তে বলা হলে স্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। এ নিয়ে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে পাশে থাকা শাবল দিয়ে স্ত্রীর মাথায় আঘাত করেন হাবিবুর। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তার স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, হাবিবুর রহমানের ২ ছেলে ও ৩ মেয়ে। মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। ২ ছেলে ঢাকার একটি সিমেন্ট কারখানায় চাকরি করে। 

সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুব আলম জানান, স্ত্রীকে নামাজ পড়তে বলায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে আমি জানতে পারি। তবে এমন ঘটনা সত্যিই দুঃখজনক।



সাতদিনের সেরা