kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পরকীয়ার জের, স্বামীর হাতে প্রাণ দিতে হলো গ্রাম্য ডাক্তারকে

নাটোর প্রতিনিধি   

৪ অক্টোবর, ২০২১ ১৯:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরকীয়ার জের, স্বামীর হাতে প্রাণ দিতে হলো গ্রাম্য ডাক্তারকে

পরকীয়া প্রেমের জেরে নাটোরের নলডাঙ্গায় প্রতিপক্ষের ফালার আঘাতে আহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) নামে এক গ্রাম্য ডাক্তার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। রবিবার (৩ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।

পুলিশ ও গ্রামবাসী জানায়, ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামের মহসিন আলী ভুট্টুর স্ত্রী জোস্না বেগমের সাথে একই গ্রামের গ্রাম্য ডাক্তার রহিদুল ইসলামের পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে গত ২৭ সেপ্টম্বর রাত ৯টার দিকে ডাক্তার রহিদুল ইসলাম পীরগাছা বাজারে নিজের ওষুধের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে মহসিন আলী ভুট্টু ফালা দিয়ে আঘাত করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রহিদুল ইসলামকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতরাতে তার মৃত্যু হয়। নিহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) উপজেলার ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামের আবুল কাসেম মন্ডলের ছেলে।

গ্রামবাসী জানান, ভুট্টুর স্ত্রী জোসনা বেগমের সাথে নিহত রহিদুলের দীর্ঘদিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে বসে সমাধানের চেষ্টা করা হয়। সমাধান ফলপ্রসু না হলে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়। সর্বশেষ জোসনা বেগম ভুট্টুকে তালাক দিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, তিনি বিষয়টি অবগত হয়েছেন। তবে এ ঘটনায় এখনো থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেননি। 



সাতদিনের সেরা