kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

রাতভর অবস্থানের পর সকালে আ.লীগ নেতার বাড়িতে ডিবির তল্লাশি

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি    

১ অক্টোবর, ২০২১ ১৪:৪৯ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রাতভর অবস্থানের পর সকালে আ.লীগ নেতার বাড়িতে ডিবির তল্লাশি

যশোরের চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও বাস মালিক সমিতির সদ্য সভাপতি জসিম উদ্দীনের বাড়ি চৌগাছা-যশোর সড়ক সংলগ্ন ফারহানা টাওয়ারে জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা অভিযান পরিচালনা করেছেন। অভিযানের উদ্দেশ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে আজ শুক্রবার সকাল ৭টা পর্যন্ত তারা অবস্থান করেন। আজ সকালে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে সকাল ৭টায় বাড়িতে প্রবেশ করে তল্লাশি চালানো হয়েছে। ডিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একটি মামলার তদন্ত সংক্রান্ত ব্যাপারে অভিযান পরিচালনা করার জন্য আসা হয়। কিন্তু বাড়ির লোকজন গেট না খোলার কারণে সারা রাত তারা অবস্থান করেন।

আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িটি বাজারের প্রবেশমুখে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ১০টার দিকে ১০/১২ জন ব্যক্তি দুটি গাড়িতে এসে বাড়ির সামনে নামেন। তাদের গায়ের পোশাকে ডিবি লেখা ছিল। এরপর তারা বাড়িটির চারপাশে অবস্থান নেন। স্থানীয়রা জানান, একজন কর্মকর্তাসহ ডিবি সদস্যরা জসিম উদ্দীনের বাসভবনে প্রবেশ করার চেষ্টা করে।

বলে আওয়ামী লীগ নেতার স্ত্রী অভিযোগ করেন বলেন, ডিবি সদস্যদের উপস্থিতিতে পরিবারের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগ নেতার স্ত্রী ফারহানা ইসলাম সার্চ ওয়ারেন্ট আছে কিনা জানতে চান। কিন্তু তারা দেখাতে পারেননি, এমনকি কোন উদ্দেশ্যে এসেছে সেটাও বলেনি। 
 
স্থানীয়রা জানান, রাত আনুমানিক ১২টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ি ফারহানা টাওয়ারের নিচের গেটের তালা ভেঙে বাড়িতে প্রবেশ করেন ডিবি সদস্যরা। কিন্তু ওপরের তলায় আরো একটি গেট থাকার কারণে তারা ঢুকতে পারেনি। ডিবি পুলিশ বাড়ির আশপাশে সারারাত অবস্থান নেয়। 

সূত্র জানায়, এই ঘটনার খবর পেয়ে আজ শুক্রবার সকালে বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এ সময় সমিতির নেতৃবৃন্দ ডিবি কর্মকর্তার কাছে জসিম উদ্দীনের বাড়িতে অবস্থানের কারণ জানতে চান। ডিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, আন্তঃজেলা ডাকাতদলের এক সদস্যের ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে তিনি আসামি হয়েছেন। সেজন্য তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসা হয়েছে। এ সময় জসিম উদ্দীনের শ্বশুর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম ও বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমানের উপস্থিতিতে বাড়িতে প্রবেশ করে তল্লাশি চালায় ডিবি।

জসিম উদ্দীনের স্ত্রী ফারাহানা ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে সাদা পোশাকধারী কয়েকজন ডিবি পরিচয় দিয়ে বাস ভবনে ঢুকতে চাইলে আমি সার্চ ওয়ারেন্ট চাই। তারা দিতে ব্যর্থ হন। যেহেতু রাতে সন্তানদের নিয়ে বাড়িতে একা ছিলাম, এই জন্য দরজা খুলিনি। তারা বাসার নিচের গেটের তালা ভেঙে ওপরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। আরো একটি গেট থাকার কারণে বাসায় প্রবেশ করতে পারেনি। সকালে বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বাসায় প্রবেশ করে তল্লাশি চালায়।

বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বলেন, সকালে ঘটনাটি শোনার পরে বাস মালিক সমিতির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দীনের বাড়িতে যাই। সেখানে ডিবি কর্মকর্তাদের কাছে জানতে চাইলে ডিবির এস আই শাহিনুর রহমান জানান, একটি মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এসেছি। পরে জসিম উদ্দীনের স্ত্রীর সাথে কথা বলে আমরা বাসভবনে প্রবেশ করি। কিন্তু সভাপতি জসিম উদ্দীন বাড়িতে ছিলেন না। 

এ বিষয়ে জেলা গেয়োন্দা শাখা ডিবির ওসি (তদন্ত) কর্মকর্তা শাহিনুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, জেলা গোয়েন্দা শাখার অভিযানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ডাকাতি মামলায় আটজনকে গ্রেপ্তার করেছি। তাদের মধ্যে মিজান নামের এক আসামি ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে জসিম উদ্দীনের নাম উল্লেখ করেছেন। আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এসেছি। যেহেতু তিনি বাড়িতে নেই এই কথাটি আমাদেরকে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি। যার কারণে অভিযানের জন্য সারারাত অবস্থান করতে হয়েছে।  

এদিকে একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ডিবি কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে মামলার আসামি যে মিজানের নাম বলা হয়েছে সেই ব্যক্তি এক বছর পূর্বে জসিমের ছোট ছেলে বিএম উষান তামিমকে টাকার লেনদেনকে কেন্দ্র করে যশোর থেকে অপহরণ করে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। 



সাতদিনের সেরা