kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

৫ বছরের সাজার ভয়ে পলাতক ছিলেন ১৪ বছর!

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৫ বছরের সাজার ভয়ে পলাতক ছিলেন ১৪ বছর!

১৪ বছর পালিয়ে থাকার পর পাবনার ভাঙ্গুড়া থেকে আবু সাঈদ তালুকদার নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি টাঙ্গাইল জেলার সখীপুর থানার গৌড়গোবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা। 

সোমবার সকালে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ ও সখীপুর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের শরৎনগর বাজারের শ্বশুরবাড়ি থেকে তাকে আটক করে। আজ মঙ্গলবার তাকে আদালতের মাধ্যমে টাঙ্গাইল জেলা থেকে পাঠানো হয়।

জানা যায়, আবু সাঈদ সখীপুর বাজারে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে প্রবাসীদের ব্যাংক ড্রাফটের ব্যবসা করতেন। একপর্যায়ে তিনি চড়া সুদ দেওয়ার কথা বলে সখীপুর বাজারের অনেক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা নেন। পরে সুযোগ বুঝে তিনি টাঙ্গাইল থেকে পালিয়ে পাবনার ভাঙ্গুড়ায় চলে আসেন। এরপর ২০০৭ সালে সখীপুর বাজারের ব্যবসায়ী মামুন আহমেদ টাঙ্গাইল আদালতে সাড়ে ১৩ লাখ টাকার চেক ডিজ অনারের মামলা দায়ের করেন আবু সাঈদের বিরুদ্ধে। ২০০৮ সালে ওই মামলার রায়ে আবু সাঈদের পাঁচ বছরের সাজা হয়। ভাঙ্গুড়ায় এসে আবু সাঈদ পৌর শহরের বিভিন্ন সড়কে অটো সিএনজি ভ্যান চালিয়ে জীবন নির্বাহ করতেন। এ অবস্থায় সখীপুর থানা পুলিশ তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় দীর্ঘদিন পর আবু সাঈদের অবস্থান জানতে পেরে অভিযান চালায়।

এদিকে ভাঙ্গুড়ায় অবস্থানকালে আবু সাঈদ শরৎনগর বাজারে দ্বিতীয় বিয়ে করে সংসার শুরু করেন। এখানে তার দুটি সন্তান রয়েছে। 

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফয়সাল বিন আহসান ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সাজাপ্রাপ্ত আসামি আবু সাঈদ টাঙ্গাইল থেকে পালিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গুড়ায় অবস্থান করছিলেন। এরপর সখীপুর পুলিশের এএসআই সানিউল ও ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশের এএসআই এনামুল হক যৌথ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেন।



সাতদিনের সেরা