kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সাড়ে ৩ লাখ টাকা হলেই একটি চোখের আলো ফিরে পাবেন আমিরুল

বেনাপোল প্রতিনিধি   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৫:৫৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাড়ে ৩ লাখ টাকা হলেই একটি চোখের আলো ফিরে পাবেন আমিরুল

একটি চোখের আলো ফেরাতে লাগবে সাড়ে ৩ লাখ টাকা। অন্য চোখটি আর ভালো হবে না। একটি চোখ দিয়ে পৃথিবীর আলো দেখতে চায় যশোরের বেনাপোল পোর্ট থানার নারায়নপুর গ্রামের আহম্মদ আলীর ছেলে আমিরুল ইসলাম (১৮)।

ডাক্তার বলেছেন, তার দুটি চোখের মধ্যে একটি চোখ আর কখনো ভালো করা সম্ভব নয়। কর্নিয়া লাগালে একটি চোখ সে ফিরে পাবে। কর্নিয়া লাগানোর জন্য খরচ হবে সাড়ে তিন লাখ টাকা। কর্নিয়া লাগালে আমিরুল ফিরে পেতে পারে আবারো একটি চোখের স্বাভাবিক আলো। কিন্তু দিনমজুর পিতা-ভাইদের পক্ষে এই টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয়।

তরুণ আমিরুল একটি চোখ দিয়ে পৃথিবীর আলো দেখতে চান। আবারও সংসারের হাল ধরতে চান। ছেলের দৃষ্টিশক্তি ফিরে পেতে স্বজনেরা সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আকুতি জানিয়েছেন। ইতিমধ্যে প্রায় দেড় লাখ টাকা দিয়েছেন বেনাপোলের বিভিন্ন সংগঠন ও স্কুলের বন্ধু ব্যাচর সদস্যরা। বাকী টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছেন না আমিরুলের স্বজনেরা।

বেনাপোলের নারায়নপুর গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর আহম্মদ আলীর সন্তান আমিরুল। দিনমজুর পিতার সংসারের হাল ধরতে বেছে নেন স্যানিটারি মিস্ত্রির কাজ। চলতি বছরের ৯ জুন সকালে বেনাপোল পৌর সভার ৩নং ওয়ার্ডের রহিমের বাড়িতে স্যানিটারি কাজ করার সময় তার হাতে থাকা শাবলের আঘাতে পরিত্যক্ষ একটি বস্তুতে আঘাত লাগলে একটি বোমা বিস্ফোরিত হয়। এ সময় বিস্ফোরণে তার মুখ ও বুক ঝলসে যায়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে নাভারণ ও পরে খুলনা হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে নেওয়া হয় ঢাকা শ্যামলী বিজ্ঞান ও চক্ষু ইনিস্টিটিউট ও ঢাকা বার্ণ ইউনিটে। সেখান থেকে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা শেষে সম্প্রতি বাড়ি ফিরেছে। একটি অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনার কারণে অসহায় আমিরুলের দুটি চোখই নষ্ট হয়ে গেছে। তবে একটি চোখে কর্ণিয়া লাগালে সে দেখতে পারবে। সে জন্য খরচ হবে সাড়ে ৩ লাখ টাকা। ২০ দিন পরে ডাক্তার ঢাকার হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেছেন। অর্থের অভাবে নিয়ে যেতে পারছে না আমিরুলকে।

আমিরুলের চোখের অবস্থা আরো দিনদিন খারাপ হচ্ছে বলে হতাশ কণ্ঠে জানান স্বজনেরা। পরিবারের পক্ষ থেকে সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আকুতি জানিয়েছে ছেলেটির বড় ভাই আনারুল ইসলাম।

কোনো সহৃদয়বান ব্যক্তিরা সাহায্য সহযোগিতা করতে চান তবে বিকাশ নাম্বার-০১৯৯৪-৭৩৭৪৫০(পার্সোনাল) বা সোনালী ব্যাংক বেনাপোল শাখার একাউন্ট নং-২৩০৬৯০১০১২৬৩১ তে পাঠাতে পারেন। এই নাম্বারে ইমু হোয়ার্টসঅ্যাপ খোলা আছে কেউ যদি ভিডিও কলে দেখে সহযোগিতা করতে চান তাহলে অবশ্যই ভিডিও কল দিতে পারেন।



সাতদিনের সেরা