kalerkantho

শনিবার । ৩১ আশ্বিন ১৪২৮। ১৬ অক্টোবর ২০২১। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আসামির ছুরিকাঘাতে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু, বাড়িতে শোকের মাতম

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসামির ছুরিকাঘাতে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু, বাড়িতে শোকের মাতম

রংপুরের হারাগাছে মাদক কারবারির ছুরিকাঘাতে এএসআই পিয়ারুলের মৃত্যুতে রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চন্দ্রপাড়া গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

জানা গেছে, রংপুরের হারাগাছ থানার বাহার কাছনা এলাকায় মাদক মামলার আসামিকে ধরতে গিয়ে আসামির ছুরিকাঘাতে হারাগাছ থানার এএসআই পিয়ারুল ইসলাম গুরুতর আহত হয়। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল ইসলাম নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হারাগাছ থানার ওসি শওকত হোসেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হারাগাছ থানার এসআই পিয়ারুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ নগরীর বাহার কাছনা এলাকায় মাদক কারবারি পলাশকে ১৫১ পিস ইয়াবাসহ আটক করে। এ সময় আসামি পলাশ পুলিশ কর্মকর্তা এএসআই পিয়ারুলকে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত করে। তাকে দ্রুত রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় তিনি মারা যান।

নিহত পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল ইসলামের বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার চন্দ্রপাড়া গ্রামে। তার বাবা মিন্টু মিয়া চন্দ্র পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। পিয়ারুল ইসলামের এক স্ত্রী, ৬ বছর ও ২ বছর বয়সের ২টি ছেলে রয়েছে। ওই দিন সন্ধ্যা ৬টায় পিয়ারুলের লাশ বাড়িতে নিয়ে আসলে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত ৯টায় চন্দ্রপাড়া সরকারি প্রথামিক বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হবে।

হারাগাছ থানার ওসি শওকত হোসেন জানান, মাদক কারবারি পলাশকে আটক করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা