kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ঠাকুরগাঁওয়ে তিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৩ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২৩:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঠাকুরগাঁওয়ে তিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৩ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার পৃথক তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ১৩ জন শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে আছে। তারা সবাই ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা পরিবারের এতিম শিশু। বালিকা শিশু পরিবারে বর্তমানে মোট ৬৫ জন এতিম শিশু আছে। তাদের সরকারি খরচে লালন পালন করা হয়। তারা আশপাশের বিভিন্ন স্কুলে পড়াশোনা করে।

করোনায় আক্রান্ত ১৩ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাহাদুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ জন, সোনালী শৈশব বিদ্যানিকেতনে তিনজন এবং হাজীপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫ জন ছাত্রী পড়ালেখা করে। বৃহস্পতিবার থেকে বাহাদুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করেছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে অন্য দুটি প্রতিষ্ঠানের ক্লাস বন্ধ করা হয়নি।

বাহাদুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ফারহানা পারভিন সম্পা জানান, বুধবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির দুজন ও পঞ্চম শ্রেণির তিনজন ছাত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরামর্শ মতে বিদ্যালয়ের ৪র্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও শিশু পরিবারের উপ-তত্ত্বাবধায়ক রিক্তা বানু বলেন, ১৬ সেপ্টেম্বর দু’একজন শিশু জ্বরে আক্রান্ত হয়। এরপর আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলে ২০ ও ২১ সেপ্টেম্বর ২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ২৩ সেপ্টেম্বর ১৩ জনের করোনা পজিটিভ আসে। তারা সবাই শিশু পরিবারে আইসোলেশনে আছে। কারো কোনো জটিলতা নেই। ১৬ সেপ্টেম্বরের পর থেকে কাউকে স্কুলে পাঠানো হয়নি।

অভিভাবক বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলে সন্তানদের মানসিক চাপ থাকে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে ছেলে-মেয়ে কোথায় যায় কার সঙ্গে ঘুরে বেড়ায় তা বোঝা যায় না। তাই নিজেদের সন্তানের লেখাপড়ার স্বার্থে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার অনুরোধ জানান তারা। 



সাতদিনের সেরা