kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ধর্ষণের পর শিশুকে হত্যার অভিযোগ

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২১:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণের পর শিশুকে হত্যার অভিযোগ

অভিযুক্ত আসামি

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ৫ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত শিশুটির নাম লিজা আক্তার। সে পুরিন্দা গ্রামের নাম রযমান আলীর মেয়ে।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পুরিন্দা বড় বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত শিশুটি গ্রামের স্থানীয় এক ব্যক্তির মেয়ে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সকাল ১০টা থেকে শিশুটিকে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক স্থানে খোঁজ করার পর পুরিন্দা এলাকার নান্নু মিয়ার ঘরটি তালাবদ্ধ দেখতে পান। এতে লোকজনের সন্দেহ হলে তালা ভেঙে ঘরে দেখেন শিশুটির লাশ পড়ে আছে। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

স্থানীয়রা জানান, পুরিন্দা গ্রামের নান্নু মিয়ার বাড়িতে সামাদ নামের একলোক ভাড়া থাকে। তার সাথে ৩/৪ জন লোক সব সময় আসা-যাওয়া করে। এরা বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে কাজ করে। স্থানীয়দের অভিযোগ ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে।

আড়াইহাজার থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) সালেহ আহমেদ জানান, লাশ ময়নাতদন্ত করার জন্য নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। জনতা ৩ জনকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে। আটকৃতরা হলো উপজেলার আশুয়াট গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে সোহেল (৩০), কচুয়া থানার রঘুনাথপুর গ্রামের আলী আশরাফের ছেলে সামাদ (৩৫) ও পলাশ থানার কবিরাজপুর গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে শিমুল (৩২)।

আড়াইহাজার থানার ওসি (তদন্ত) জোবায়ের হোসেন জানান, এই ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ধর্ষণের কোনো আলামত আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ময়না তদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে। 



সাতদিনের সেরা