kalerkantho

সোমবার । ২ কার্তিক ১৪২৮। ১৮ অক্টোবর ২০২১। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

হাতিয়ায় রক্তক্ষয়ী নির্বাচনী সহিংসতা, আহত ১১

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১২:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাতিয়ায় রক্তক্ষয়ী নির্বাচনী সহিংসতা, আহত ১১

আগামীকাল সোমবারের অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কন্দ্রে করে নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দলীয় ও বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বুড়িরচর ইউনিয়নের ইব্রাহিম মার্কেট এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হচ্ছেন বুড়িরচর ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আবুল হাসেমের ছেলে আব্দুর রহমান (৪০), গিয়াস উদ্দিনের ছেলে জহির উদ্দিন বাবর (৪৫), হেজু মেস্ত্রীর ছেলে সাহাব উদ্দিন (৩৮), সাইফুল ইসলামের ছেলে সাজ্জাদুল ইকবাল (৩৬), ইউছুফের ছেলে আমির হামজা (৩৬)-সহ ১১ জন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রচারণার শেষ দিন শনিবার সন্ধ্যার পর আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফখরুল ইসলামের লোকজন পথসভা করার উদ্দেশ্যে সাগরিয়া বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে তারা ইব্রাহিম মার্কেট এলাকায় পৌঁছলে তাতে হামলা চালায় কয়েকজন দুর্বৃত্ত। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১১ জন আহত হন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, তাদের পূর্ব নির্ধারিত পথসভায় যাওয়ার পথে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জিয়া আলী মোবারক উল্যার সমর্থকরা তাতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা আমার সমর্থক জহির উদ্দিন বাবরের হাতের কবজি কেটে দিয়েছে।

জানতে চাইলে নৌকার প্রার্থী জিয়া আলী মোবারক জানান, আমার কোনো লোক এ হামলার সঙ্গে জড়িত নয়, তারাই মিছিল থেকে আমার লোকের ওপর হামলা করেছে।

হাতিয়া থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। তবে ঘটনায় কেউ থানায় এখনও অভিযোগ করেনি।



সাতদিনের সেরা