kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পিটিআই ক্লাসে ফ্যান খুলে পড়ল মাথায়! শিক্ষিকা হাসপাতালে

জামালপুর প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২১:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিটিআই ক্লাসে ফ্যান খুলে পড়ল মাথায়! শিক্ষিকা হাসপাতালে

ক্লাস চলাকালে সচল সিলিং ফ্যান মাথার ওপর পড়ে গুরুতর আহত হন প্রশিক্ষণার্থী শিক্ষিকা শামীমা নাসরিন। ছবি : কালের কণ্ঠ

ক্লাস চলাকালে সিলিং ফ্যান মাথার ওপর পড়ে গুরুতর আহত হয়েছেন প্রশিক্ষণার্থী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা শামীমা নাসরিন (৩৫)। তাকে জামালপুর ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে জামালপুরের প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (পিটিআই) ভয়াবহ এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত শামীমা নাসরিন জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার পলিকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।

পিটিআই সূত্র জানায়, পিটিআইয়ের হলরুমে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম শিফটের ক্লাস চলাকালে আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে আকস্মিক একটি সিলিং ফ্যান প্রশিক্ষণার্থী শামীমা নাসরিনের মাথার ওপর পড়ে যায়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। দুর্ঘটনার সময় অন্যান্য প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে আতঙ্ক দেখা দেয়। তারা শামীমা নাসরিনকে দ্রুত জামালপুর সদর হাসপাতালের মহিলা সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে ভর্তি করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রশিক্ষণার্থী একজন শিক্ষক শনিবার রাতে কালের কণ্ঠকে জানান, গুরুতর আহত শিক্ষিকা শামীমা নাসরিনের সিটিস্ক্যানসহ বেশ কিছু পরীক্ষা করাতে হবে। তাই তাকে শহরের বেসরকারি শাহজামাল (রহ.) জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার মাথার আঘাতের স্থান সিটিস্ক্যান করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। সিটিস্ক্যান প্রতিবেদন পাওয়ার পর চিকিৎসকরা বলতে পারবেন যে তার পরবর্তী চিকিৎসার পদক্ষেপ কি হবে।

এদিকে ভয়াবহ দুর্ঘটনার পরও শনিবার বেলা ৩টার দিকে পিটিআইয়ের দুর্ঘটনাস্থলে ক্লাসে নিতে দেখা গেছে। প্রশিক্ষনার্থীদের দাবি, ক্লাসরুমের সিলিং ফ্যানগুলো বেশ পুরনো। এ বিষয়ে বারবার অভিযোগ দিলেও কর্তৃপক্ষ কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না।

পিটিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত সুপারিনটেনডেন্ট মো. শহীদুল্লাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ক্লাস চলাকালে মাথার ওপর সচল সিলিং ফ্যান খুলে পড়ে গুরুতর আহত শিক্ষিকা শামীমা নাসরিনের চিকিৎসা চলছে। হাসপাতালে ভর্তি করানোসহ তার চিকিৎসার বিষয়ে কর্তৃপক্ষ তার পাশে আছে। আপাতত তার বড় ধরনের বিপদ কেটে গেছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা করানো হচ্ছে।

পুরাতন সিলিং ফ্যান প্রসঙ্গে মো. শহীদুল্লাহ বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে পুরাতন সিলিং ফ্যানগুলো খুলে নতুন ফ্যান লাগানো হবে। একই সঙ্গে যেসব ফ্যান ঠিক আছে কিন্তু ওয়্যারিং নষ্ট হয়ে গেছে, সেই ওয়্যারিং পয়েন্টগুলো সরিয়ে নতুন করে ওয়েরিং করে ফ্যান লাগিয়ে দেওয়া হবে। 



সাতদিনের সেরা