kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

কোটালীপাড়ায় নৌকাবাইচ, আনন্দে মাতল দুই পাড়ের মানুষ

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৮:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোটালীপাড়ায় নৌকাবাইচ, আনন্দে মাতল দুই পাড়ের মানুষ

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে উপজেলার কালীগঞ্জ নদীতে নান্দনিক এ নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়। প্রাচীন বাংলার ঐতিহ্যে লালিত আকর্ষণীয় এ নৌকাবাইচে গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, পিরোজপুর, নড়াইল, বরিশাল জেলার প্রত্যন্ত গ্রামের শতাধিক সরেঙ্গা, ছিপ, কোষা বাছারি নৌকা অংশ নেয়।

আবহমান গ্রামবাংলার কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও নিজস্বতা ধরে রাখতে হাজার প্রাণের আনন্দে কোটালীপাড়ার কালীগঞ্জের বাবুর খালে কালীগঞ্জ বাজার থেকে খেজুরবাড়ী পর্যন্ত ২ কিমি এলাকা জুড়ে নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়। বাড়তি আকর্ষণ ছিল নৌকায় নৌকায় মেলা। নৌকায় ও ট্রলারে করে নৌকাবাইচ দেখতে নারীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে উৎসবের আমেজে সন্ধ্যায় এ নৌকাবাইচ সম্পন্ন হয়েছে। বিভিন্ন বয়সের মানুষ খালের দুই পাড়ে দাঁড়িয়ে নৌকাবাইচ প্রত্যক্ষ করেন।

কুমারকান্দি গ্রামের রিপন ঘটক বলেন, আমাদের এলাকার নৌকা বাইচ কেউ প্রচলন করেননি। প্রায় দু’ শ’ বছর আগে বিল এলাকার মানুষ চিত্ত বিনোদনের জন্য নৌকা দিয়ে নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা করতো এ থেকে এটি প্রচলিত হয়। সে ঐতিহ্য এখনো চলছে। নৌকাবাইচ থেকে এলাকার মানুষ নির্মল আনন্দ উপভোগ করে।

কলাবাড়ি গ্রামের গৃহিণী বিউটি ওঝা বলেন, নৌকাবাইচ থেকে শুধু আনন্দ পেতেই নৌকার মালিকরা নৌকা নিয়ে এখানে আসেন। বাইচ উপলক্ষে বাড়িতে বাড়িতে আত্মীয়-স্বজনরা আসে। ভালো খাবারের আয়োজন করা হয়। মিলেমিশে সবাই আনন্দ উপভোগ করি।

কলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলার কালীগঞ্জে নৌকাবাইচ এখনো বর্ণিল। এ অঞ্চলে বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে নৌকাবাইচের মধ্য দিয়ে মৌসুমের বাইচের সূচনা হয়। এ নৌকাবাইচের কেউ আয়োজন করেন না। মনের খোরাক মেটাতে স্থানীয়রা নৌকাবাইচ দিয়ে থাকেন। এ কারণে এখনো  কোটালীপাড়ায় নৌকা বাইচ সগৌরবে টিকে আছে। প্রতিবছর দুর্গা ও লক্ষ্মী পূজায় কালীগঞ্জসহ কোটালীপাড়ার বিভিন্ন স্থানে নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়।



সাতদিনের সেরা